আড়াইহাজারে বিএনপির হাল ধরতে চান অনু

0
585

Untitled-02

আড়াইহাজার প্রতিনিধি:আড়াইহাজার উপজেলা বিএনপির অতীতের নেতৃত্ব নিয়ে রয়েছে নানা আলোচনা-সমলোচনা। দলটির মনোনয়ন প্রত্যাশী নেতাদের টানাপোড়নের কারণে দীর্ঘদিন ধরে তৃণমুলের নেতাকর্মীরা এক প্রকার অস্বস্তিতে রয়েছেন। একাধিক নেতৃত্বের দৌঁরাত্মে দ্বিকবিদ্বিক ছুঁটছেন তারা। এখন যারা পদের জন্য সরব হয়ে উঠেছেন। এদের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে অনেকেই ছিলেন লাপাত্তা। কমিটি ঘোষণার খবরে সুবিধাবাদী এসব নেতারা থানা পর্যায়ের নেতৃত্বে আসার আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। অনেকের দাবী, দলের জন্য নয়; নিজের অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখতে গিয়ে কমিটির তালিকায় নিজের নাম লিখাতে উঠে পড়ে লেগেছেন তারা। অভিযোগ উঠেছে, পদ প্রত্যাশী অনেক নেতাই আওয়ামী লীগের সাথে প্রকাশ্যেই যোগাযোগ রক্ষা করে চলছেন। এসব নেতাদের ওপর ভরসা রাখতে পারছে না তৃণমুলের নেতাকমীরা। উপজেলার বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মীরা নেতৃত্বের পরিবর্তন আনতে দফায় দফায় বৈঠক করছেন। এমন অবস্থায় আড়াইহাজার থানা বিএনপির হাল ধরতে চান আনোয়ার হোসেন অনু।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, উপজেলা বিএনপির সভাপতি পদে লবিং করছেন, বদরুজ্জামান খান খসরু, সাবেক এমপি আতাউর রহমান আঙ্গুর, সাবেক বিআরডি’র ও বিএনপির নেতা চেয়ারম্যান মো: আনোয়ার হোসেন, থানা বিএনপির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মো: জাহাঙ্গীরসহ আরো অনেকে।

আড়াইহাজার সরকারি সফর আলী কলেজ শাখা ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি ও ছাত্র সংসদের সাবেক ভিপি এবং থানা শাখা ছাত্রদলের যুগ্ম-আহ্বায়ক ও বর্তমানে থানা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী এম এ মতিন ভূঁইয়া বলেন, আনোয়ার হোসেন অনু’কে থানা বিএনপির সভাপতির দায়িত্ব দেয়া হলে বিএনপির দীর্ঘদিনের ধন্যদশা দূর হবে। আস্থার সাথে নেতাকর্মীরা দলের জন্য কাজ করতে পারবেন। এইনেতার দাবী অনু দীর্ঘদিন ধরে বিএনপির রাজনীতিতে একজন জ্বলন্ত নক্ষত্র হয়ে আছেন। বিএনপির নেতাকর্মীদের পাশে তিনি অন্তত্র প্রহোরীর মতো পাহাড়া দিচ্ছেন। তিনি একজন বলিষ্ট ও সাহসী নেতা। তাকে কমিটির দায়িত্ব দেয়া হলে আমাদের পূর্বাঞ্চলের বিএনপির নেতাকর্মীদের কোনো আপত্তি থাকার কথা নয়।

বিএনপির নেতা রুপ চাঁন বলেন, আনোয়ার হোসেন নানা কারণে বিএনপির থানা পর্যায়ের নেতাকর্মীদের মাঝে আলোচনার কেন্দ্র বিন্দুতে পরিণত হয়েছেন। তিনি (অনু) দলের জন্য দীর্ঘদিন ধরেই নিবেদিত হয়ে কাজ করছেন। তার ওপর নানা চাপ থাকার পরও তিনি একটুও বিচলিত হননি। তাকে বিএনপির তৃণমুলের হাজার হাজার নেতাকর্মী বিএনপির রাজনীতিতে সরব রয়েছেন। তিনি বিপদে-আপদে হামলা, মামলার শিকার নেতাকমীদের সাথে ছিলেন।

এ প্রতিবেদককে আনোয়ার হোসেন (অনু)বলেন, মামলা, হামলার শিকার বিএনপির নেতাকর্মীদের ছাঁয়া দিয়ে যাচ্ছি। দলের মনোনয়ন প্রত্যাশীরা ঢাকা বসে দলীয় কার্যক্রম পরিচালনা করছেন। বিগত আন্দোলন সংগ্রামে তাদের এলাকায় দেখা যায়নি। বিএনপির কার্যক্রম চালানোর মতো আড়াইহাজারে একটি বসার জায়গা ছিল না। আমার মালিকানাধীন আশিক সুপার মার্কেটে অবস্থিত বিএনপির কার্যালয়ে ১১ বছরে দলের কার্যক্রম চলছে। এখানে কেন্দ্রীয় নেতা থেকে শুরু করে থানা পর্যায়ের নেতাকর্মীরা দলের কার্যক্রম চালাচ্ছেন। বিএনপির রাজনীতি করার কারণে আমার বিরুদ্ধে ১৭টি মামলা দেয়া হলেও; আমি দল ত্যাগ করেনি। সাবেক এমপি আঙ্গুর ও খসরু’র বিরুদ্ধে রাজনৈতিক হয়রানিমূলক একটি মামলাও হয়নি।