সোনারগাঁওয়ে মেঘনায় ট্রলার ডুবি আরো ১ নারীর লাশ উদ্ধার ॥ নিহতের সংখ্যা ১১

0
1068

Untitled-02 - Copy

আজকের সোনারগাঁওঃ নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওয়ের চরকিশোরগঞ্জ এলাকায় মেঘনা নদীতে যাত্রীবাহী ট্রলার ডুবির ঘটনায় শিল্পী বেগম (৩২) নামে আরো এক নারীর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। ফলে এ লাশ উদ্ধারের মধ্য দিয়ে মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১১ জনে।  শনিবার দুপুরে ফায়ার সার্ভিস ও বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ) এর ডুবুরী দল লাশটি উদ্ধার করে। নিহত শিল্পী বেগম ঢাকার রামপুরা এলাকার আব্দুস সাত্তারের স্ত্রী। লাশ উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করে সোনারগাঁও থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মাকসুদুর রহমান বলেন, মেঘনা নদীতে শনিবার দুপুরে লাশটি ভাসতে দেখে উদ্ধার করা হয়। পরে নিহতের ভাই জাকির হোসেনের কাছে লাশ হস্তান্তর করা হয়েছে। ডুবুরী দল আরো লাশ আছে কিনা তা তল্লাশী চালিয়ে যাচ্ছেন।
এর আগে গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার সাত্তার (৪০), কাঞ্চন বেগম (৬৮) ও জহুরা বেগম (৭২), নদী (৪) নামে শিশুসহ ৪ ও শুক্রবার দুপুরে ডুবুরিরা শরিফা (৪৭), ও তার মেয়ে রুবিনা (৩১) রানু আক্তার (৩২) বানু বেগম (৪৫), শান্তা আক্তার (২৮) ও জয়বুন নেছা (৬৫)। আরও ৬টি লাশ উদ্ধার করেছেন। এ নিয়ে নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ১১জনে। এখনও আরো ৮ জন নিখোঁজ রয়েছেন বলে স্বজনদের দাবি। নিখোঁজ যাত্রীদের সন্ধানে মেঘনা তীরে ভিড় করছেন স্বজনেরা। তাদের আহাজারীতে বাতাস ভারী হয়ে উঠেছে। উল্লেখ্য, ঢাকার রামপুরা এলাকা থেকে ৯০ জন যাত্রী নিয়ে ইঞ্জিনচালিত কাঠের ট্রলারটি চাঁদপুরের মতলব উপজেলার বেলতলীর সোলেমান শাহ ওরফে লেংটার মেলায় যাওয়ার পথে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় সোনারগাঁও উপজেলার শম্ভূপুরা ইউনিয়নের চরকিশোরগঞ্জ এলাকায় মেঘনা নদীর ঢেউ উত্তাল বাতাসে ডুবে যায়। সোনারগাঁও উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. শাহীনুর ইসলাম বলেন, মেঘনা নদীতে লাশ উদ্ধার তৎপরতা অব্যাহত রয়েছে। নিখোঁজদের লাশ উদ্ধারের জন্য ফায়ার সার্ভিস ও বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ) এর ডুবুরী দল চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।