সোনারগাঁওয়ে এক গৃহবধু ও একই পরিবারের পাঁচজনকে পিটিয়ে ও কুপিয়ে আহত

0
3147

Untitled-02 - Copy

আজকের সোনারগাঁওঃ নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলার জয়রামপুর এলাকায়  সোমবার যৌতুকের জন্য এক গৃহবধু ও তার সন্তান এবং বরাব এলাকায় বাড়ী সীমানা নিয়ে এক ব্যবসায়ী পরিবারের পাঁচজনকে পিটিয়ে ও কুপিয়ে মারাত্মক ভাবে আহত করেছে প্রতিপক্ষের লোকজন। এ বিষয়ে থানায় পৃথক ভাবে লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। এলাকাবাসী ও পুলিশ জানায়, সোনারগাঁ পৌরসভার জয়রামপুর গ্রামের সাহাবুদ্দিনের ছেলে আমিন মিয়ার সঙ্গে বন্দর উপজেলার উনুন গ্রামের রবিউল মিয়ার মেয়ে মনিরা আক্তারের বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই স্বামী ও তার শশুর বাড়ীর লোকজন যৌতুকের জন্য বিভিন্ন সময়ে ওই গৃহবধুকে মারধর করে অমানুসিক ভাবে নির্যাতন করত। সোমবার ওই গৃহবধুর পরিবারের দুই লাখ টাকা যৌতুক দাবী করে। দাবীকৃত টাকা না পেয়ে গৃহবধুর শশুর শাহাবুদ্দিন ও দেবর আনিছ মিয়া দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে হামলা চালিয়ে গৃহবধু মনিরা বেগমকে পিটিয়ে ও কুপিয়ে রক্তাক্ত ভাবে জখম করে। এ সময় তার পাঁচ বছরের মেয়ে আরুবি আক্তার এগিয়ে আসলে তাকেও পিটিয়ে মারত্মক ভাবে আহত করে তারা। অপর দিকে সাদিপুর ইউনিয়নের বরাব গ্রামের মোতালেব মিয়ার সঙ্গে তার প্রতিবেশী ব্যবসায়ী মোসলেম মিয়ার বাড়ি সীমানা প্রাচীর নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। এর জের ধরে সোমবার দুপুরে মোতালিব মিয়া, আলমগীর হোসেন, মনির হোসেন, নিজাম উদ্দিন, আবুল হোসেনসহ ৮/১০ জনের একদল সন্ত্রাসী বাহীনি রামদা, ছোড়া, শাবল ও লোহার রড সহ দেশিয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে হামলা চালিয়ে মোসলেম মিয়া, মামুন মিয়া, হযরত আলী, আব্দুল মতিন মিয়া ও মোলেমা আক্তারকে পিটিয়ে ও কুপিয়ে মারাত্মক ভাবে আহত করে। আহতদের সোনারগাঁ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহতদের মধ্যে তিন জনের অবস্থা আশংকা জনক। এ দিকে আহত গৃহবধু মনিরা আক্তারের মা সালমা বেগম বলেন, যৌতুকের জন্যই আমার মেয়ের শশুর বাড়ীর লোকজন আমার মেয়ে ও তার সন্তানকে পিটিয়ে ও কুপিয়ে মারত্মক ভাবে আহত করেছে। এদিকে আহত মোসলেম মিয়া বলেন, বাড়ীর সীমানা প্রাচীর নিয়ে বিরোধের জের ধরেই সন্ত্রাসী মোতালেব হোসেনের লোকজন আমাদের পরিবারের পাঁচজনকে পিটিয়ে ও কুপিয়ে মারত্মক ভাবে আহত করেছে। এদিকে শাহাবুদ্দিন ও আনিছ মিয়া তাদের বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ অস্বীকার করেন।

সোনারগাঁ থানার ওসি মঞ্জুর কাদের বলেন, গৃহবধু ও ব্যবসায়ী এবং তার পরিবারের সদস্যদের পিটিয়ে ও কুপিয়ে আহত করার ঘটনায় পৃথক ভাবে লিখিত অভিযোগ নেওয়া হয়েছে। আসামীদের গ্রেফতারের জন্য পুলিশ বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালাচ্ছে।