0
1217

Untitled-02 - Copy

আজকর সোনারগাওঃ নারায়ণগঞ্জ জেলার সোনারগাঁ উপজেলার কুতুবপুর এলাকার মৃত জহিরুল হক মুন্সির রেখে যাওয়া সম্পত্তির ওয়ারিশ হিসেবে তার মেয়ে মমতাজ বেগম ফরায়েজ অনুযায়ী ১৮ শতাংশ পাওয়ার কথা থাকলেও এলাকার লোকজন ও তার তিন ভাই আজিজুল,এমদাদুল ও মোজাম্মেল মিলে তাকে ১১শতাংশ দেয়ার কথা স্বীকার করে পরে তাকে ৫ শতাংশ জমি দেয়া হয় বলে অভিযোগ মমতাজের । তিনি জানান ৮ বছর যাবত উক্ত জমিতে ঘর নির্মাণ করে বসবাস করে আসছে ,পৈত্রিক সম্পত্তি দেয়ার পর থেকেই দীর্ঘ দিন যাবত মমতাজের ভাই এমদাদুল তাকে বসতভিটা থেকে উৎখাত করতে সত্রুতা পোষন করে আসছিলো। মমতাজ আরও জানান,বিগত চার মাস ধরে কাচঁপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোশারফে হোসেনর কাছে ঘুরেও কোন বিচার পাইনি,স্থানীয় মেম্বার নাজমুল সহ এলাকার গন্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ আমাদের এই জমি সংক্রান্ত বিরোধের কথা জানার পর তারা বিচার করে দেওয়ার পরেও আমার ভাই এমদাদুল কারও কোন কথাকেই মান্য না করে আমাকে আমার পিতার সম্পত্তি থেকে উৎখাত করে ছাড়বে বলে হুমকি দিয়ে আসছে । এরই জের ধরে গত ২৭শে এপ্রিল মমতাজ বেগমের ভাই এমদাদুল ও তার মেয়ের জামাইর চাচা দেলোয়ার,মাসুম মিয়া,রিয়াজুল ইসলাম সহ অঙ্গাতনামা আরোও ৩/৪ জন মিলে দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে মমতাজের স্বামী আসলাম মিয়া,মমতাজ বেগম এবং তার ছেলে মহসিনের উপর সন্ত্রাসী হামলা চালিয়ে তাদের হাতপা ভেঙ্গে দেয়।এসময় আসলাম মিয়া বাধ্য হয়ে সোনারগাঁ থানায় লিখিত অভিযোগ করেন।এ বিষয়ে অভিযোগের তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই সেন্টু বলেন ,অভিযোগ পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শণ করে ঘটনার সত্যতা পেয়েছি,এ বিষয়ে আহত আসলামের পরিবার মামলা করলে অবশ্যই দায়ীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।