নারায়ণগঞ্জে আলোচিত ৪ হত্যা মামলার রায় , অভিযুক্ত ২৩ অসামীর বিরুদ্ধে ফাসিঁর আদেশ।

0
3663

Untitled-02 - Copy

আজকের সোনারগঁওঃ  দীর্ঘ পনের বছর অপেক্ষার পর নারায়ণগঞ্জে আলোচিত ৪ হত্যা মামলায় অভিযূক্ত ২৩ আসামীর বিরুদ্ধে ফাসিঁঁর আদেশ দিয়েছে আদালত।  বুধবার নারায়ণগঞ্জ দ্বিতীয় অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ কামরুন নাহার এ রায় ঘোষনা করেছেন । ২৩ আসামীর বিরুদ্ধে ফাসিঁর আদেশে সন্তুষ্ট বাদী ও নিহতের স্বজনরা, রায়কে যুগান্তরকারী হিসেবে অখ্যা দিয়েছে রাষ্ট্র পক্ষ। ন্যায বিচারের আশায় উচ্চ আদালতে আপীল করবে বলে জানিয়েছে আসামী পক্ষের আইনজীবি। গত ২০০২ সালের ১২ই মার্চ আড়াই হাজার থানা ছত্রলীগের সভাপতি ও উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলামের ছোট ভাই বারেক , ফুফাত ভাই বাদল ও আওয়ামীলীগ কর্মী ওমর ফারুক ও কবির কে ডেকে নিয়ে নির্মমভাবে ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করে হার ভেঙ্গে রগ কেটে ফেলে রেখে চলে যায় ঘাতকরা। পুলিশ ও এলাকাবাসী তাহাদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গেলে তাহারা চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়। এ ঘটনায় নিহত বারেকের পিতা মোঃ আজগর আলী মেম্বার বাদী হয়ে বিগত ১৩-০৩-০২ ইং তারিখে আবুল বাশার ওরফে কাসু সহ ১৯ জনকে আসামী করে আড়াই হাজার থানায় হত্যা মামলা দায়ের করে। পরে পুলিশ তদন্ত শেষে আবুল বাশার ওরফে কাসু , ডালিম, ইয়াকুব আলী , রফিক , হালিম , রোহেল , সাহাবদ্দিন ,লিয়যাকত আলী মাষ্টার ,সিরাজ উদ্দিন ,ইদ্দিস অলী, মোঃ হোসেন , আবু কালাম , আহাদ আলী , ইউনুস আলী, জহির উদ্দিন , ফারুক হোসেন , গোলাম আযম , আব্দুল হাই , খোকন ,আল অমিন , রুহুল অমিন, তাজুল ইসলাম ও হারুন কে মোট ২৩ জনকে অভিযুক্ত করে অভিযোগ পত্র দাখিল করে। এ মামলায় মোট ১৬ জন স্বক্ষীর স্বাক্ষ্য গ্রহন এবং রাষ্ট্র পক্ষ ও আসামী পক্ষের যুক্তিতর্ক গ্রহন শেষে গত ৪ মে পলাতক আলঅমিন , রুহুল আমিন , তাজুল ইসলাম ও হারুন বাদে ১৯ আসামী কে জেল হাজতে প্রেরণ করে ১৭ মে রায় ঘোষনার দিন ধার্য করে আদালত। গতকাল দুপুর ১২ টায় ১৯ আসামীর উপস্থিতিতে ২৩ আসামীর বিরুদ্ধে ফাসিঁর আদেশ দেণ নারায়ণগঞ্জ দ্বিতীয় অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ ´রুন নাহার। এ রায়ে সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছে বাদী পক্ষ।
রাাষ্ট্র পক্ষে নিয়োজিত আইনজীবি জেসমিন আহাম্মেদ রায়ের প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে বলেন , নারায়ণগঞ্জে ৭ খুন মামলার রায়ের পর ২৩ আসামীর বিরুদ্ধে ফাসিঁর আদেশ বাংলাদেশের একটি যুগান্তরকারী রায়। যারা দেশে আইনের শাসন নেই বলে মন্তব্য করেন তাহাদেরকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন ,এ রায় প্রমাণ করে দেশে আজ আইনের শাসন প্রতিষ্ঠিত। এবং প্রধাণমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্যই তা সম্ভব হয়েছে।
এদিকে আসামী পক্ষের আইনজীবি খোরশেদ আলম মোল্লা বলেছেন , আসামীরা এ রায়ে ক্ষুদ্ধ তাহারা উচ্চ আদালতে অপীল করবেন আশা করা যায় তাহারা ন্যায় বিচার পাবেন। অন্যান্য আসামীরাও উচ্চ আদালতে অপীল করবেন বলে জানিয়েছেন তাহাদের আইনজীবি ও স্বজনরা।