বন্দরের মদনপুরে স্বাস্থ্য সেবার নামে প্রতারণা করছে ৫টি প্রাইভেট ক্লিনিক

0
3202

Untitled-02 - Copy

আজকের সোনারগাওঃ স্বাস্থ্য সেবা কেন্দ্র বা ডায়াগনস্টিক সেন্টার নামে কসাইখানা বসিয়ে অপচিকিৎসা দিয়ে রোগীদের হয়রানি করে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে নারায়ণগঞ্জ জেলার বন্দর উপজেলাধীন মদনপুরের নামে বেনামে ৫টি প্রাইভেট হাসপাতাল বা ডায়াগনস্টিক সেন্টার এগুলো হচ্ছে মা হাসপাতাল,দি বারাকা,আরকে হাসপাতাল, ঈশাখা হাসপাতাল এবং আল বারাকা হাসপাতাল।এসব ক্লিনিকে প্রশাসনের নজরদারীর অভাবে প্রতিনিয়ত অপচিকিৎসার শিকার হচ্ছেন শত শত রোগ,এমনকি এসব ক্লিনিকের অদক্ষ্য কিছু ডাক্তার দ্বারা চিকিৎসা নিয়ে অপচিকিৎসায় প্রাণ দিতে হয়েছে অনেক রোগীকে।সম্প্রতি মা হাসপাতালে এস এস সি পাস একজন এম বি বি এস ভূয়া ডাক্তার মাহাবুব আলম ভূইয়া কে অপচিকিৎসা প্রদান কালে হাতেনাতে গ্রেফতার করেছে পিবিআই(পুলিশ ব্যুরো ইনভেষ্টিগেশন)এর একটি ইউনিট।একজন এস এস সি পাস ব্যাক্তি মা হাসপাতালে নিয়োগ পেয়ে নিজের নামের পাশে এম বি বি এস ডিগ্রী বসিয়ে দিব্বি বীরদর্পে মোটা অংকের ভিজিট নিয়ে মা হাসপাতালের মালিক এবং ভূয়া ডাক্তার মাহাবুব আলম মিলে দিনের পর দিন রোগীদের নিকট থেকে মোটা অংকের টাকা নিয়ে অপচিকিৎসা দিয়ে আসছিলেন।মা হাসপাতাল থেকে ভূয়া ডাক্তার গ্রেফতারের এক সপ্তাহ পার না হতেই গতকাল আবারো মা হাসপাতালের অদক্ষ্য ডাক্তারদের অপচিকিৎসায়,নাজমুন নাহার(২৩) নামের এক প্রসূতির মৃত্যু হয়।মা হাসপাতালের ভূল চিকিৎসায় প্রসূতির মৃত্যু সম্পর্কে জানতে চাইলে  হাসপাতালের সহকারী ম্যানেজার মনিরুজ্জামান বিষয়টি তার জানা নেই বলে জানান।অপরদিকে রোগীদের আধুনিক চিকিৎসা সেবা প্রদানের নাম করে একের পর এক টেষ্ট করার নামে ভূল রিপোর্ট প্রদান করে রোগীদের নিকট থেকে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে দি বারাকা হাসপাতাল।সম্প্রতি দি বারাকা হাসপাতালের অপচিকিৎসায় রোগী মারা যাওয়ার ঘটনাকে ধামাচাপা দিতে বন্দর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি এম এ রশীদের হস্তক্ষেপে প্রায় ৫ লক্ষ টাকায় মিমাংশা করে দি বারাকা হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। তাছাড়া রোগীদের বিনা প্রয়োজনে অসংখ্য টেষ্ট করার নাম করে ভূল রিপোর্ট দিয়ে রোগীদের কাছ থেকে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ ও রয়েছে দি বারাকা হাসপাতালের বিরুদ্ধে।এবিষয়ে দি বারাকা হাসপাতালের এডমিন ম্যানেজার সাইফুল ইসলাম তাদের বিরুদ্ধে এসব অভিযোগ অস্বীকার করেন।একই ভাবে রোগীদের হয়রানি ও অপচিকিৎসা দিয়ে মদনপুর বাসীর আতঙ্কের কারণ হয়ে দাড়িয়েছে ঈশাখা,আল বারাকা ও আরকে হাসপাতাল।এলাকাবাসীর সাথে কথা বলে জানা যায়,প্রশাসনের কোন নজরদারী না থাকায় এবং পুলিশকে টাকার বিনিময়ে কিনে নিয়ে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিয়ে রোগীদের অপচিকিৎসা দিচ্ছে এসব স্বাস্থ্য  সেবা নামে কসাইখানা হাসপাতাল গুলো।মা হাসপাতালের মত মদনপুরের অন্যান্য হাসপাতাল গুলোতেও এমন ভূয়া ডাক্তার দ্বারা চিকিৎসা সেবা দিয়ে যাচ্ছে বলে অভিযোগ ভূক্তভোগীদের,তাই মদনপুরের এসব হাসপাতাল নামের কসাইখানায় জরুরী ভিত্তিতে মোবাইল কোর্টের দাবী জানান ভূক্তভোগী ও এলাকাবাসী।এ ব্যাপারে জেলা সিভিল সার্জন ও জেলা পুলিশ সুপারের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করছেন মদনপুর বাসী সহ ভুক্তভোগী শত শত রোগী ও পরিবারবর্গ।