৫ লাখ টাকা নিয়ে উধাও যমুনা ইন্সুরেন্স

0
1232

আজকর সোনারগাওঃ যমুনা ইন্সুরেন্স কোম্পানি নামে একদিনের জন্য অফিস ভাড়া নিয়ে সোনারগাঁ উপজেলার কাচঁপুর ইউপির বেহাকৈর এলাকা ও আশেপাশের আরও তিনটি গ্রাম থেকে সঞ্চয়ের বিনিময়ে লোন দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে গতকাল প্রায় ৫ লক্ষ টাকা নিয়ে পালিয়েছে ভূয়া এনজিও কোম্পানিটি।খবর পেয়ে ঘটনার সত্যতা যাচাইয়ের জন্য ঘটনাস্থলে গেলে কয়েকজন ভূক্তভোগী যথাক্রমে বিল্লাল পিতা,সামসুল হক-জহিরুল পিতা ফিরোজ-ময়নামিয়া পিতা নান্নুমিয়া-আলমগীর  পিতা মাহাজ উদ্দিন-হোসেন পিতা জলিল-ফাতেমা,পিতা নান্নু মিয়াসহ আরোও ২০-২৫জন ভূক্তভোগী হাহাকার করে জানান,বেহাকৈর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সাথে ইয়ানুছ মিয়ার বাড়ীর দোতলায় বাসা ভাড়া নিয়ে যমুনা ইন্সুরেন্স কোম্পানি নামে একটি সাইনবোর্ড লাগিয়ে আমাদের লোন দেয়ার নাম করে পাচঁ হাজার,দশ হাজার,বিশহাজার কিংবা কারোও কারোও কাছ থেকে কম বেশি টাকা নিয়ে প্রায় ৫লক্ষ টাকার মতো সঞ্চয় আদায় করে পালিয়ে যায়,আমরা অনেকেই আমাদের শেষ সম্বল টুকু দিয়ে কেউবা সুদের বিনিময়ে টাকা নিয়ে লোনের আশায় টাকা জমা দিয়েছি,আমরা সকলেই দিনমজুর ও খেটে খাওয়া মানুষ,আমাদের সঞ্চয়ের টাকা উদ্ধারে সোনারগাঁ থানা প্রশাসন সহ মাননীয় এমপি মহোদয়ের হস্তক্ষেপ কামনা করছি,এবিষয়ে বাড়ির মালিক মোঃ ইয়ানুছ মিয়া বলেন”যেদিন ঘটনা ঘটে ঐদিন সকাল বেলা আমার বাসা ভাড়া নেয়ার জন্য আমার কাছে তিন চার জন লোক এসে তারা একটি এনজিও অফিস নেয়ার কথা বলেন,আমি তাদের আইডি কার্ড এবং পরিচয় পত্র চাইলে তারা পরের দিন সকাল বেলা একসাথে কাগজ পত্র এবং ভাড়ার এডভান্স দিবে বলে একটি রুমে উঠেন,কিন্তু পরের দিন ভোর সকালের পর থেকে তাদের আর দেখা পাইনি,পরবর্তীতে পাস্ববর্তী এলাকার কিছু লোক এসে বলছেন ঐ এনজিওর লোকজন নাকি তাদের কাছ থেকে টাকানিয়ে পালিয়েছে।আমিও চাই এই অসহায় ভূক্তভোগীরা যেনো তাদের সঞ্চয়ের টাকা ফেরত পায় এবং এরকম জালিয়াতি চক্র যেনো আর কাউকে নিঃশেষ করে চলে যেতে না পারে সে জন্য পুলিশ প্রশাসনের কাছে আমি অনুরোধ জানাই।