সোনারগাঁয়ে প্রবাসীর স্ত্রীকে নিয়ে দুলাভাই উধাও ॥ বড় বোনের আহাজারী

0
9006

Untitled-02 - Copy

আজকের সোনারগাঁওঃ নিজের কপাল নিজে খেলাম, খাল কেটে কুমির আনলাম, এমনই আহাজারী মুক্তি আক্তার (৩২) নামের এক গৃহিনীর । সোনারগাঁ উপজেলার পিরোজপুর ইউনিয়নের কান্দারগাঁও গ্রামের খোরশেদের ছেলে সবুজ মিয়া স্ত্রী মুক্তি আক্তারকে নিয়ে মোগরাপাড়া ইউনিয়নের গোহাট্টা গ্রামে একটি ভাড়া বাড়িত ভাড়া থাকত । বিয়ের দেড় বছরের মাথায় মাইসা নামে একটি মেয়ে শিশুর জন্ম হয়। নবজাতক শিশু মাইসাকে দেখাশোনা করার জন্য ছোট বোন নাজমিন আক্তার (১৮) কে ভাড়া বাড়িতে নিয়ে আসেন।  শিশু মাইসাকে দেখাশোনা করার পাশাপাশি বোনের অজানতে দুলাভাইয়ের দেখাশোনাও করতে থাকে শ্যালিকা । এক পর্যায়ে দুলাভাই ও শ্যালিকা দুজনে দুজনের হাতধরে পালিয়ে যায় অজানার উদ্দেশ্যে। নাজমিন আক্তারের বিয়ে হয়েছিল মুন্সিগঞ্জ জেলার গজারিয়া থানার বলাকী চরের গিয়াসউদ্দিনের ছেলে শাহআলমের কাছে । স্বামী শাহআলম দীর্ঘদিন যাবত সৌদী আরব কর্মরত আছেন । প্রবাসী শাহআলম ও নাজমিন আক্তারের সাড়ে ৩ বছরের একটি পুত্র সন্তান রয়েছে । দুলাভাইয়ের হাত ধরে পালিয়ে যাওয়ার সময় সেই সন্তানকেও সাথে নিয়ে গেছেন নাজনিন। বড়বোন মুক্তি আক্তার সমঝোতা করার জন্য চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়ে অবশেষে মুখ খোললেন সাংবাদিকদের কাছে । আজ রবিবার এ রিপোর্ট লোখা পর্যন্ত সোনারগাঁ থানায় অভিযোগ দায়েরের প্রস্তুতি চলছে ।