সোনারগাঁয়ে চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী বাবুলকে বাঁচাতে আশ্রাফউদ্দিন মেম্বারের কান্ড ॥ মাদক ব্যবসায়ী সিন্ডিকেটের প্রহারে পুলিশ আহত

0
6793

Untitled-02 - Copy

আজকের সোনারগাঁওঃ  নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও উপজেলায় সাদিপুর ইউনিয়নের বেলপাড়া এলাকায়  শনিবার বেলা সাড়ে ৩ টার দিকে মাদক ব্যবসায়ী বাবুল হোসেন ও তার সহযোগীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ হয়েছে। এ সময় মাদক ব্যবসায়ীদের হামলায় সোনারগাঁও থানা পুলিশের এএসআই ইমাম আহাদ ও কনষ্টেবল শফিকুল ইসলাম এবং স্থানীয় ইউনিয়নের সদস্য আশরাফ উদ্দিনসহ ৩জন আহত হয়েছেন। খবর পেয়ে পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা পুলিশের আহত ২ সদস্যকে উদ্ধার করে স্থানীয় হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করেছেন।
পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে,  দুপুরে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সাদিপুর ইউনিয়নের বেলপাড়া গ্রামে সোনারগাঁও থানার এএসআই ইমাম আহাদ ও কনস্টেবর শফিকুল ইসলাম একটি সিএনজি দিয়ে হামিদ চৌধুরীর ছেলে ও বিষু মিয়ার মেয়ের জামাই ওয়ারেন্টের আসামী ও মাদক ব্যবসায়ী বাবুল হোসেনকে ৫ কেজি গাঁজাসহ আটক করেন। পরে ওয়ারেন্টের আসামী ও মাদক ব্যবসায়ী বাবুল হোসেনকে সিএনজিতে তুলে। এ সময় বাবুলের স্ত্রী খোদেজা ওরফে খুদু ও তার সহযোগী সামাদের ছেলে মনির ওরফে কাইল্লা মনিরসহ মাদক ব্যবসায়ী সেন্ডিকেট পুলিশের সিএনজিটি ঘেরাও করে বাবুলকে ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা চালালে, পুলিশ ও মাদক ব্যবসায়ীদের সঙ্গে ধস্তা ধস্তি শুরু হয়। এ সময় সাদিপুর ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের সদস্য আশরাফ উদ্দিন ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে মাদক ব্যবসায়ী বাবুলকে ছাড়িয়ে নিতে পুলিশের সঙ্গে রফাদফার চেষ্টা চালিয়ে ব্যর্থ হয়ে পুলিশের উপর হামলা চালায়। পরে পুলিশ ও মাদক ব্যবসায়ীদের সঙ্গে সংঘর্ষ শুরু হয়। এ সময় সোনারগাঁও থানা পুলিশের এএসআই ইমাম আহাদ ও কনষ্টেবল শফিকুল ইসলাম এবং আশরাফ উদ্দিন মেম্বারসহ ৩জন আহত হয়। এদিকে এ ঘটনার পর স্থানীয় এলাকাবাসী একত্রিত হয়ে মাদক ব্যবসায়ী বাবুল মিয়ার ঘরবাড়িতে হামলা চালিয়ে ভাংচুর করে।
এ ব্যাপারে নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (খ-অঞ্চল) সাজিদুর রহমান বলেন, ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে।