সোনারগাঁয়ের সাদীপুরে মাদকসেবী রফিক মেম্বারের নেতৃত্বে অসহায় জসিমের উপর সন্ত্রাসী হামলা

0
2733

Untitled-02 - Copy

সোনারগাঁ প্রতিনিধিঃ-সোনারগাঁ উপজেলার সাদীপুর ইউপি অন্তর্গত বরাব এলাকার মৃত চাঁন মিয়ার ছেলে মাদকসেবী ইউপি সদস্য রফিকের নেতৃত্বে সরকারী চাকুরীজীবী মোঃ জসিম উদ্দীন(৪৫) ও তার পরিবারের উপর সন্ত্রাসী হামলার অভিযোগ পাওয়া গেছে।এ ব্যাপারে প্রান বাচাতে ও সঠিক বিচারের দাবীতে মাদকসেবী রফিক মেম্বারের সন্ত্রাসী হামলায় আহত জসিম উদ্দীন সোনারগাঁ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেন।অভিযোগে তিনি উল্লেখ করেন”সাদীপুর ইউনিয়ণের ১নং ওয়ার্ড সদস্য রফিক মেম্বার,আলতাফ হোসেন,রফিকের ভগ্নিপতি নাসু,আনোয়ার হোসেন,মোহাম্মদ আলী,আ: রব,পলি বেগম সহ আরোও অজ্ঞাত ৫/১০জন মিলে একত্রিত হয়ে একটি শক্তিশালী সিন্ডিকেট তৈরী করে এলাকায় মাদক ব্যবসা সহ ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করে যাচ্ছে।তাদের অত্যাচারে বহিরাগত কেউ ওই এলাকায় জমি ক্রয় করে বসতবাড়ীতে থাকতে গেলে প্রতি মাসে মাসোহারা দিয়ে থাকতে হয়।সরকারী চাকুরীজীবী জসিম উদ্দীন বরাব এলাকায় বাড়ী তৈরীর পর থেকে এ পর্যন্ত বিভিন্ন সময়ে রফিক মেম্বার ও তার বোন জামাই নাসু বাহিনীকে চাঁদা দিয়ে বসবাস করে আসছে।ইতিপূর্বে চাহিদামত চাঁদার টাকা না পেয়ে একাধিক বার নিরীহ জসিম ও তার পরিবারের উপর রফিক মেম্বারের নেতৃত্বে সন্ত্রাসী হামলা হলেও এলাকার গন্যমান্য ব্যাক্তিদের সহযোগীতায় তা মিমাংশা হয়।পূর্ব সত্রুতা এবং নতুন করে চাঁদা দাবী করে গত ৩০ শে জুন রাত আনুমানিক ৯.০০টায় রফিক মেম্বারের নেতৃত্বে উপরোক্ত বিবাদীগন আমার ঘরে প্রবেশ করে দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে(চাকু,লোহার রড,সাবল,লাঠি)নিয়ে আমার উপর হামলা চালিয়ে,এসময় আমাকে বাঁচাতে আমার পরিবারের লোকজন এগিয়ে গেলে তাদেরকেও মাররত্নক ভাবে মেরে রক্তাক্ত আহত করে।১নং বিবাদী রফিক মেম্বারের নির্দেশে ২নং বিবাদী আলতাফ হোসেনের হাতে থাকা বিদেশী লাইট দিয়ে আমাকে প্রাণে মেরে ফেলার উদ্দেশ্যে আমার মাথায় ও শরিরের বিভিন্ন স্থানে আঘাত করে আমাকে রক্তাক্ত জখম করে,এসময় আমার হাতে থাকা একটি ১০ হাজার টাকা মূল্যের মোবাইল ছিনিয়ে নিয়ে যায়।পরবর্তীতে আমাদের ডাক চিৎকার শুনে এলাকাবাসী এসে আমাদের উদ্ধার করে স্থানীয় সোনারগাঁ উপজেলা হাসপাতালে ভর্তি করে।আহত জসিম উদ্দীন আরোও বলেন,এই মারামারির ঘটনা যদি জানাজানি হয় বা আইনি কোন ব্যবস্থা নেয়া হয় তাহলে তাকে প্রাণে মেরে ফেলা হবে এবং তার ছেলে পারভেজকে জঙ্গি বানিয়ে জেলে প্রেরন করার হুমকি দেন মাদকসেবী রফিক মেম্বার।প্রাণের ভয়ে বর্তমানে পালিয়ে বেড়াচ্ছে আহত জসিম ও তার পরিবার। অভিযোগ পেয়ে সোনারগাঁ থানার এস আই শফিকুল ইসলাম ঘটনাস্থলে গিয়ে ঘটনার সত্যতা পেয়েছেন বলে জানিয়েছেন।এ ব্যাপারে সোনারগাঁ থানার ওসি শাহ মোঃ মন্জুর কাদের বলেন”সরকারী চাকুরীজীবির কাছে চাঁদা দাবী করে সন্ত্রাসী হামলা চালানোর অভিযোগ পেয়েছি স্থানীয় রফিক মেম্বারের বিরুদ্ধে অভিযোগ পেয়েছি,তদন্ত শেষে অবশ্যই আইনি ব্যবসা নেয়া হবে।মাদকসেবী রফিক মেম্বার ও তার বাহিনী স্থানীয় চেয়ারম্যান আব্দূর রশিদ মোল্লা ও সোনারগাঁ থানা পুলিশকে তোয়াক্কা না করে দিনের পর দিন সাদীপুর ইউপির ১নং ওয়ার্ডে মাদকের রাজত্ব কায়েম করে চলছে এবং জসিমের মতো অসহায়দের কাছে প্রতিনিয়ত জোরপূর্বক চাঁদা নিয়ে অবৈধ টাকার পাহাড় গড়ে তুলছেন।এমতাবস্থায় রফিক মেম্বারের অত্যচার থেকে বাচঁতে  নিরীহ জসিম উদ্দীন ও তার পরিবার জেলা পুলিশ সুপার,স্থানীয় সংসদ সদস্য,সোনারগাঁ থানার অফিসার ইনচার্জ সহ সকল প্রশাসনের সহযোগীতা কামনা করছেন।