র‌্যাবের অভিযানে জেএমবি সারোয়ার-তামীম গ্রুপের ২ জন সক্রিয় সদস্য গ্রেফতার

0
1091

আজকের সোনারগাঁওঃ র‌্যাব-১১ এর একটি আভিযানিক দল গতকাল বুধবার জুলাই ২ঘন্টা পর্যন্ত ঢাকার ডেমরা এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে নারায়ণগঞ্জ জেলার রূপগঞ্জ থানার মামলা নং-২৭ তারিখ ১১ জুন ২০১৭ এর এজাহার নামীয় পলাতক আসামী নিষিদ্ধ জঙ্গী সংগঠন জেএমবি সারোয়ার-তামীম গ্র“পের ২ জন সক্রিয় সদস্যকে গ্রেফতার করে। গ্রেফতারকৃত সদস্য হলো রূপগঞ্জ থানার মোঃ তুষার হাবিব@আইয়ুব(২৬) ও বড়াইতলা, শ্যামপুর, ঢাকার মোঃ আবু বক্কর ছিদ্দিক (৩৫)।  গত এপ্রিল, মে এবং জুন মাসে র‌্যাব-১১ কর্তৃক আটটি সফল জঙ্গি বিরোধী অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। এ সকল অভিযানে গ্রেফতারকৃতদের জিজ্ঞাসাবাদকালে তাদের সাথে সম্পৃক্ত জেএমবির বিভিন্ন পর্যায়ের জঙ্গি সদস্যদের সম্পর্কে তথ্য পাওয়া যায়। প্রাপ্ত সে সকল তথ্যাদি যাচাই বাচাইয়ের পর তাদেরকেও আইনের আওতায় আনার জন্য র‌্যাবের গোয়েন্দা নজরদারী বৃদ্ধি করা হয়। এরই ধারাবাহিকতায় এই দুই জেএমবি সদস্যকে গ্রেফতার করা হয় । প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতারকৃতরা জানায় যে, তারা গত ১০ জুন ২০১৭ তারিখে নারায়ণগঞ্জ জেলার রূপগঞ্জ থানাধীন পূর্বাচল হাউজিং সেক্টর ১৯-এ যে গোপন বৈঠক হয়েছিল সেই বৈঠকে উপস্থিত ছিল এবং জেএমবির (সারোয়ার-তামীম গ্র“পের) পরিকল্পিত নাশকতার কার্যক্রমের সঙ্গে সম্পৃক্ত ছিল। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে মোঃ তুষার হাবিব@আইয়ুব স্বীকার করে যে, সে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গী সংগঠন জেএমবির (সারোয়ার-তামীম গ্র“পের) সদস্য। রূপগঞ্জ থানাধীন গাউছিয়া এলাকার দাওয়াতী শাখার সক্রিয় ‘এহসার’ সদস্য এবং মোঃ আবু বক্কর ছিদ্দিক জেএমবির ‘গায়েরে এহসার’ সদস্য। তারা গত দুই বছর ধরে জেএমবির পক্ষে দাওয়াতী কাজ করে আসছিল।  মোঃ তুষার হাবিব@আইয়ুব (২৬) একজন ‘এহসার’ সদস্য। ইউনানী ঔষুধ ব্যবসার অন্তরালে নারায়ণগঞ্জের গাউছিয়া এলাকায় নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গী সংগঠন জেএমবির পক্ষে দাওয়াতী কাজ করে আসছিল। সে ২০১১ সালে এসএসসি পাশ করার পর থান কাপড়ের ব্যবসা শুরু করে। থান কাপড়ের ব্যবসা করার সময় জনৈক ইউনুস হুজুরের মাধ্যমে জেএমবির আদর্শে উজ্জিবিত হয়ে জঙ্গীবাদে অন্তর্ভূক্ত হয় এবং জনৈক ইউনুস হুজুরের মাধ্যমে জসিম উদ্দিন রাহমানির মসজিদে যায়। এরপর সে ২০১৫ সাল থেকে পুরোদমে জিহাদের আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে জেএমবির পক্ষে দাওয়াতী কাজ শুর করে। এই পর্যন্ত সে ১০-১২ জনকে জেএমবির আদর্শে অনুপ্রাণিত করে জেএমবির (সারোয়ার-তামীম) গ্র“পে যোগদান করিয়েছে। এছাড়াও মোঃ তুষার হাবিব@আইয়ুব শারিরীক প্রশিক্ষণ শেষে সামরিক শাখায় যোগদানের অপেক্ষায় ছিল। অন্যদিকে মোঃ আবু বক্কর ছিদ্দিক (৩৫) জেএমবির (সারোয়ার-তামীম গ্র“পের) একজন ‘গায়েরে এহসার’ সদস্য। বিগত ১৩ বৎসর ধরে ঢাকায় বসবাস করে। সে ২০১৩ সালে মুফতি মোঃ জসিম উদ্দিন রাহমানির কাছে যাতায়াত শুরু করে এবং তার আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে জঙ্গীবাদে প্রবেশ করে। পরবর্তীতে সে বিগত ২০১৫ সালের শুরুতে জনৈক আব্দুল্লাহ এর মাধ্যমে জেএমবিতে (সারোয়ার-তামীম গ্র“পের) যোগদান করে এবং সক্রিয় সদস্য হিসেবে দাওয়াতী কার্যক্রম শুরু করে। সে বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন ধরনের ব্যবসার অন্তরালে ঢাকার শ্যামপুর এলাকায় জেএমবির দাওয়াত প্রচার করে আসছিল। সে জেএমবির (সারোয়ার-তামীম গ্র“পের) অন্যান্য সদস্যের সাথে যোগাযোগ করত এবং জেএমবি এর দাওয়াতী বিষয়ক জ্ঞান নিয়ে বিভিন্ন মানুষের মাঝে দাওয়াত দিত। গ্রেফতারকৃত আসামীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলে জানায় র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন-১১ এর প্রধান লেঃ  কর্নেল কামরুল হাসান।