সোনারগাঁয়ে পাষন্ড পিতা পুড়িয়ে মারল ৮ মাসের কন্যা সন্তানকে ॥ থানায় মামলা

0
1905

আজকের সোনারগাঁওঃ নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলার জামপুর ইউনিয়নের পাকুন্দা এলাকায় পাষন্ড পিতা জান্নাত নামের ৮ মাসের কন্যা শিশুকে পেট্টোল দিয়ে আগুন লাগিয়ে পুড়িয়ে মেরেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে । এব্যাপারে  শুক্রবার নিহত জান্নাতের নানী সাজিয়া বেগম বাদী হয়ে সোনারগাঁ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন । নিজের কন্যাকে বাঁচাতে গিয়ে মারাত্বক আহত হয়েছে জান্নাতের মা কুলসুম আক্তার। কুলসুম আক্তার জানায় গত শনিবার রাত সাড়ে ১১ টার সময় তার স্বামী জহিরুল ঘরে এসে পূর্বপরিকল্পনা মাফিক ঘুমন্ত ৮ মাসের শিশু কন্যা জান্নাতের উপরে পেট্টোল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয় । কারণ তার কন্যা শিশু পছন্দ নয় । গত ৮ মাস আগে কুলসুম তার পিতার বাড়িতে কন্যাশিশু জন্ম দিলে তখন স্বামী জহিরুল স্পস্ট ভায়ায় জানিয়ে দিয়েছিল কন্যা শিশু তার পছন্দ নয় । সে যেন কন্য শিশুকে ওখানেই রেখে আসে । দেনদরবার করে স্বামীর বাড়িতে জান্নাতকে নিয়ে আসে । মা কুলসুম আদরের জান্নাতকে বুকে আগলে রেখে লালন পালন করে আসছিল । গত শনিবার রাতে পাষন্ড পিতা তাকে পুড়িয়ে মারার চেষ্টা করে । মা কুলসুম আগুন থেকে বাঁচাতে গিয়ে মারতক্ব আহত হন । আগুনে পোড়া জান্নাতকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার কথা বলে মা কুলসুম থেকে আলাদা করে জহিরের বাড়ির লোকজন । পরে বিনা চিকিৎসায়  শুক্রবার রাত ২টার সময় ৮ মাসের শিশুকন্যা জান্নাতের মৃত্যু হয় । সোনারগাঁ থানার এসআই মারুফ ঘটনাস্থল থেকে শিশুটির লাশ থানায় নিয়ে এসে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠায়। জানা গেছে ২০১৬ সালের নভেম্বর মাসে সোনারগাঁ উপজেলার জামপুর ইউনিয়নের পাকুন্দা গ্রামের সিকম আলীর ছেলে জহিরুল ইসলামের সাথে কুমিল্লা জেলার চান্দিনা উপজেলার কেশেরা গ্রামের আঃ মালেকের কন্যা কুলসুমের সাথে বিবাহ হয় । বিবাহের সময় ৫০ হাজার টাকা যৌতুক হিসাবে দেয় কুলসুমের বাবা পরে কয়েক দফায় আরোও ৫০হাজার আদায় করে নেয় জহিরুল। সংসার জীবন ভালই চলছিল তাদের । কুলসুমের গর্ভে কন্যা শিশু জন্মানোর পর থেকে সম্পর্কে টানপোড়নের সৃষ্টি হয় । এক পর্যায় পাষন্ড পিতা জহিরুল তার নিজের কন্যা শিশুকে পুড়িয়ে মারে । এ ঘটনা দামাচাপা দেওয়ার জন্য স্থানীয় গেলমান মেম্বার লাশ ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা চালিয়ে ব্যর্থ হয়। এ ব্যাপারে সোনারগাঁ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোরশেদ আলম ( পিপিএম) বলেন যে কেউ ঘটনা দামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করুক কোন কাজ হবে না । লাশ মর্গে পাঠানো হয়েছে ময়না তদন্তের পরে ব্যবস্থা নেয়া হবে।