সোনারগাঁও পাইলট উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ে আবারও নারী কেলেংকারী ঘটনায় সমালোচনার ঝড়

0
1936

আজকের সোনারগাঁওঃ সোনারগাঁও উপজেলার পৌরসভা এলাকায় অবস্থিত ঐতিহ্যবাহী সোনারগাঁও পাইলট উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ে আবারও নারী কেলেংকারী ঘটনায় সমালোচনার ঝড় ওঠেছে। বিদ্যালয়টির শিক্ষকের পর এবার ম্যানেজিং কমিটির এক সদস্যর বিরুদ্ধে নারী কেলেংকারীর অভিযোগ করেন এলাকাবাসী। ওই স্কুলের শিক্ষক মাজহারুল ইসলাম নামে এক লম্পট স্কুলের এক ছাত্রীর সঙ্গে অনৈতিক কর্মকান্ডে ঝড় উঠেছিল পুরো সোনারগাঁয়ে। ওই ঘটনার সময় স্কুলের ভেতরে এলাকাবাসী লম্পট শিক্ষক মাজহারুল ইসলামকে আটক করে গনধোলাই দিয়ে ছিল। লম্পট শিক্ষকের পক্ষ নেয়ার অভিযোগে এই সময়ে স্কুল ম্যানেজিং কমিটির সদস্য নেকবর হোসেন নাহিদসহ কয়েকজন আহত হন এলাকাবাসীর প্রহারে। পরে লম্পট শিক্ষক মাজহারুলকে ঐ ঘটনায় স্কুল থেকে বহিস্কার করা হয়েছিল। ঐ ঘটনায় থানা পুলিশ মামলা মোকদ্দমা চলছিল দীর্ঘদিন । শিক্ষার্থীদের অভিভাবক এবং সাধারণ মানুষদের আতংকের মাঝে স্কুল নিয়ে চলে নানা আলোচনা ও সমালোচনা । এলাকাবাসীর মনে সেই ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই আবারও নারী কেলেংকারীতে স্কুলটির সুনাম বিপন্ন হতে বসেছে। অভিযোগ উঠেছে সোনারগাঁ পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির এক সদস্য ঐ স্কুলের এক ছাত্রীর সঙ্গে অবৈধ সম্পর্কে জড়িয়ে ঐ ছাত্রীকে তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে নিয়ে অসামাজিক কর্মকান্ড করার সময় হাতে নাতে ধরে ফেলে এলাকাবাসী। পরে এলাকাবাসী ঐ ছাত্রীকে অসুস্থ অবস্থায় উদ্ধার করে নিয়ে তার বাড়িতে পৌঁছে দেয়। এই ঘটনা ছড়িয়ে পড়ে পুরো পৌরসভাসহ মেয়ের এলাকায়। লোকলজ্জার ভয়ে এবং এলাকায় জানাজানি হওয়াতে মেয়ের পরিবার অস্বস্থিতে রয়েছে। ঘটনাটি এলাকায় জানাজানি হলে স্কুল কমিটি নড়ে চড়ে বসে । নাম প্রকাশে অনেচ্ছুক ঐ স্কুল ম্যানজিং কমিটির এক সদস্য মোবাইল ফোনে কথা হলে তিনি বলেন, প্রধান শিক্ষক ও সভাপতিকে ঘটনাটি অবহিত করা হয়েছে। সভাপতির অবর্তমানে প্রধান শিক্ষক ও ম্যানেজিং কমিটির অন্যান্য সদস্যরা সভা করে অভিযুক্ত সদস্যকে আগামী ৪ মাস স্কুলে না আসার সিদ্ধান্ত জানিয়ে দিয়েছি। উল্লেখ বর্তমান স্কুল কমিটির মেয়াদ পূর্ন হতে আরো ৪ মাস বাকী রয়েছে। এ ঘটনায় এলাকায় সমালোচনার ঝড় উঠেছে । (প্রিয় পাঠক আমাদের বিশেষ সংবাদদাতা তথ্য সংগ্রহে মাঠে কাজ করছে পরবর্তী বিস্তারিত জানতে চোখ রাখুন আজকের সোনারগাঁও ডট কমে )