প্রতিশোধ নিতে আনোয়ার মেম্বার গ্রুপের ফের হামলা ॥ ১০ লাখ টাকার মালামাল লুট

0
4897

আজকের সোনারগাঁওঃ নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও উপজেলার মোগরাপাড়া ইউনিয়নের দড়িকান্দি (ইলিয়াসদি) এলাকায় গতকাল বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১১ টা থেকে  শুক্রবার বিকেল সাড়ে ৪ টা পর্যন্ত আনোয়ার মেম্বার ও তার বড় ভাই সন্ত্রাসী জসিমউদ্দিন গ্রুপের দফায় দফায় হামলায় ইকবাল হোসেন গ্রুপের ৬জন আহত হয়েছে। এ সময় ১২টি বাড়িঘর ভাংচুর, ১০ লাখ টাকার মালামাল লুটপাটের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এলাকায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ও পূর্ব শত্রুতার জের ধরে এ হামলার ঘটনা ঘটে। মারাত্মক আহতরা হলো, ইকবাল হোসেন গ্রুপের ইকবাল হোসেন, মোকশেদুজ্জামান লিটন, খোরশেদ বাবুল, ওসমান গনি, জুয়েল এবং আনোয়ার মেম্বার গ্রুপের জসিমউদ্দিনসহ উভয় গ্রুপের ৬জন। সরেজমিনে গিয়ে জানা গেছে, এলাকায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ও পূর্ব শত্রুতার জের ধরে গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে আনোয়ার মেম্বারের নেতৃত্বে তার বড় ভাই সন্ত্রাসী জসিমউদ্দিন, ভাতিজা বিল্লালসহ ৩০-৩৫ জনের একদল সন্ত্রাসী দেশীয় ধারালো অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত হয়ে প্রতিপক্ষ ইকবাল হোসেন মুদি ও বিকাসের দোকানে হামলা চালায়। এতে ইকবাল হোসন গ্রুপের ৫ জন ও আনোয়ার হোসেন মেম্বারের বড় ভাই সন্ত্রাসী জসিমউদ্দিনসহ মোট ৬ জন আহত হন। এ ঘটনায়  শুক্রবার দুপুরে ইকবাল হোসেন ও বিল্লাল হোসেন উভয় গ্রুপ পৃথকভাবে সোনারগাঁও থানায় অভিযোগ করে। এদিকে উভয় পক্ষ থানায় অভিযোগ করার পর পরই শুক্রবার বিকেলে আনোয়ার হোসেন মেম্বারের নেতৃত্বে ৫০-৬০ জনের একদল সন্ত্রাসী অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে ইকবালের এবং তার লোকজনে বাড়ি বাড়ি গিয়ে দুই দফা হামলা চালায়। এ সময় বাড়িঘরে ব্যাপক ভাংচুর ও লুটপাট করেছে। এ ব্যাপারে আহত ইকবাল বলেন, আমাদের ১২টি বাড়িঘর ভাংচুর ও ১০ লাখ টাকার মালামাল লুট হয়েছে। আনোয়ার মেম্বার ও তার বড় ভাই সন্ত্রাসী জসিমউদ্দিন গত প্রায় ৩০ বছর যাবত বীরদর্পে এলাকায় সন্ত্রাসী কর্মকান্ড এবং মাদকদ্রব্য ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে। এই সন্ত্রাসী বাহিনীর বিরুদ্ধে এলাকার কেউ মুখ খুলতে সাহস পায় না। এ ঘটনায় সোনারগাঁও থানার অফিসার ইনচার্জ মো. মোরশেদ আলম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। সন্ত্রাসীদের কোন প্রকার ছাড় দেয়া হবে না।