পূজামন্ডপ এলাকায় পুলিশের একাধিক টিমের টহল। পোদ্দার বাড়ির মন্ডপে সিসি ক্যামেরা

0
336

আজকের সোনারগাঁওঃ শরতের আকাশে সাদা মেঘের ভেলা আর দিগন্ত জুড়ে কাশফুলের মেলা জানিয়ে দিয়েছে
শারদীয় দুর্গা উৎসবের। গত মঙ্গলবার (২৬ সেপ্টেম্বর) সারাদেশে একযোগে শুরু হয়েছে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা। ধুপ, ধুনুচি আর ঢাকের তালে আরতি ও প্রসাদ বিতরণে মেতে উঠেছে নারায়ণগঞ্জের পুরো সোনারগাঁও উপজেলা। হিন্দু সম্প্রদায়ের মানুষ ছাড়াও সমাজের সকল শ্রেণী-পেশা ও ধর্মের মানুষের অংশগ্রহণে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্যদিয়ে সোনারগাঁও উপজেলার ১০টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভায় শারদীয় দূর্গোৎসব পালিত হচ্ছে। এবছর উপজেলায় ৩১টি পূজামণ্ডপে জাঁকজমকপূর্ণভাবে দূর্গোৎসব পালিত হচ্ছে। এদিকে এবারের দূর্গোৎসবে উপজেলার পঞ্চমীঘাটের ঐতিহ্যবাহী পোদ্দারবাড়ি
পূজামণ্ডপ সবচেয়ে বেশি অলংকরণ ও সাজসজ্জা করা হয়েছে। উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে এবারের পূজামণ্ডপগুলোতে ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। পূজায় যাতে কোনো প্রকার অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটে
সেজন্য প্রশাসনের পক্ষ থেকে জোরালো নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২৮ সেপ্টেম্বর) পঞ্চমীঘাট  অমল পোদ্দার বাড়ির পূজামণ্ডপসহ উপজেলার কয়েকটি পূজামণ্ডপ ঘুরে দেখা যায়, পুজামণ্ডপগুলোতে উৎসবমুখর
পরিবেশ বিরাজ করছে। নানা রঙের ফেস্টুন, ব্যানার আর আলোকসজ্জায় বর্ণিল হয়ে উঠেছে মণ্ডপগুলো। দলে দলে পূজারিরা আসছেন, ভক্তি অঞ্জলি দিয়ে যাচ্ছেন। গ্রহণ করছেন মা দুর্গার আশীর্বাদ। এছাড়া অন্যান্য ধর্মের দর্শনার্থীরাও দলে দলে আসছেন; মণ্ডপ, আলোকসজ্জা, বিভিন্ন শৈল্পিক কারুকার‌্য ঘুরে ঘুরে
দেখছেন। এদিকে এলাকার বিশিষ্ট শিল্পপতি ও সমাজ সেবক অমল পোদ্দার সিআইপির বাড়ির
পুজামণ্ডপে বাড়তি নিরাপত্তায় বসানো হয়েছে সিসি ক্যামেরা। নিয়োগ দেয়া হয়েছে নিজস্ব নিরাপত্তাকর্মী। নারায়ণগঞ্জের বন্দর এলাকা থেকে তিন সন্তানকে নিয়ে পোদ্দারবাড়ি পুজামণ্ডপে আসেন দর্শনার্থী রাণী দাস। পুজামণ্ডপের সামনে কথা হয় তার সঙ্গে। তিনি বলেন, আজ সকালে স্বামী সন্তানকে নিয়ে বিভিন্ন পুজামণ্ডপে ঘুরলাম। সব শেষ এখানে এসেছি। এখানকার আয়োজন ও নিরাপত্তা দেখে আমি মুগ্ধ। ছেলে-মেয়েরাও
অনেক মজা করছে। সোনারগাঁও থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোরশেদ আলম পিপিএম বলেন,
দূর্গাপুজায় মণ্ডপগুলোতে সার্বক্ষণিক নিরাপত্তা দিতে পুলিশ, র‌্যাব, আনসার বাহিনীসহ বিভিন্ন আইনশৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা নিয়োজিত রয়েছেন। এছাড়াও পুলিশের একাধিক টিম বাড়তি নিরাপত্তা দিতে টহল ডিউটিতে নিয়োজিত রয়েছে। প্রসঙ্গত, আগামী শনিবার (৩০ সেপ্টেম্বর) বিজয়া দশমী ও প্রতিমা বিসর্জনের
মধ্য দিয়ে শেষ হবে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সর্ববৃহৎ এ ধর্মীয় উৎসব।