সোনারগাঁয়ে সন্ত্রাসী টাইগার রুহুল আমিন এর থাবায় একই পরিবারের ৭ জন আহত

0
2160

Untitled-02-Copy-150x150

আজকর সোনারগাঁওঃ নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও উপজেলায় সাদিপুর ইউনিয়নের নানাখি এলাকায় জমি সংক্রান্ত  বিরোধের জের ধরে শুক্রবার সন্ধ্যায় প্রতিপক্ষের সন্ত্রাসী টাইগার রুহুল আমিন ও সঙ্গীয় সন্ত্রাসীরা একই পরিবারের নারীসহ ৭ জনকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে মারাত্মকভাবে আহত করেছে। এ সময় সন্ত্রাসীরা হাজি আব্দুল কাদিরের ঘরবাড়ি ভাংচুর ও ঘরে থাকা সাড়ে ৩ লাখ টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে গেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।আহতরা হলেন, হাজি আব্দুল কাদির (৭৮), হাবিবুর রহমান (৬৫),  সামসুল হক (৬০), মোজ্জামেল হক (৩৪), রিয়াজ আহমেদ রাজু (২৮), সুমাইয়া আক্তার (১৭) ও জাহানারা বেগমসহ (৪৫) ৭ জন। মারাত্মক আহতদের স্থানীয় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করা হয়েছে।এ ব্যাপারে আহত আব্দুল কাদিরের ছেলে মো. জাকির হোসেন বাদি হয়ে সোনারগাঁও থানায় আক্তার হামিদ ওরফে বাচ্চু, ইদ্রিস আলী, টাইগার রুহুল আমিন, তোফাজ্জল, সিরাজ, মুকবুল, শরীফ, মজিবুর, তাবারকসহ ৩৫জনকে আসামী করে একটি অভিযোগ দায়ের করেছে।অভিযোগে জাকির হোসেন জানান, উপজেলার সাদিপুর ইউনিয়নের পূর্ব নানাখি এলাকার মৃত আব্দুল হামিদের ছেলে আক্তার হামিদ বাচ্চুর সঙ্গে জমি সংক্রান্ত বিরোধ চলে আসছে। এ জমি সংক্রান্ত পূর্ব শত্রুতার জের ধরে আক্তার হামিদ ওরফে বাচ্চুর নেতৃত্বে এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী টাইগার রুহুল আমিনসহ ৩০-৩৫ জনের একটি সন্ত্রাসী দল দেশীয় অস্ত্রেশস্ত্রে সজ্জিত হয়ে আব্দুল কাদির ও তার ভাই হাবিবুর রহমান, সামসুল হকের বাড়িতে অতর্কিতভাবে হামলা চালায়। এ সময় সন্ত্রাসীদের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে হাজি আব্দুল কাদির, হাবিবুর রহমান, সামসুল হক, মোজ্জামেল হক, রিয়াজ আহমেদ রাজু, সুমাইয়া আক্তার ও জাহানারা বেগমসহ ৭ জন মারাত্মক আহাত হয়।