সোনারগাঁয়ে স্বামীর পরকীয়ায় বাঁধা দেয়ায় স্ত্রীকে গলাটিপে হত্যার অভিযোগ

0
254

 

আজকের সোনারগাঁওঃ পরকীয়া প্রেমে বাঁধা দেয়ায় মারজিয়া আক্তার (২৮) নামে তিন সন্তানের জননীকে গলাটিপে হত্যার করেছে বলে স্বামী আজিজুলের বিরুদ্ধে অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত কাল বৃহস্পতিবার রাত ৯টার দিকে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলার সনমান্দি ইউনিয়নের ফতেপুর দড়িকান্দি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। হত্যাকান্ডের পর থেকেই ঘাতক স্বামী আজিজুলসহ তার পরিবারের লোকজন পলাতক রয়েছে। এ ব্যাপারে নিহতের বড় ভাই ওমর ফারুক শুক্রবার বাদী হয়ে ঘাতক আজিজুল ও শ^াশুরী নুরজাহান, দেবর জসিমসহ ৬জনকে আসামী করে সোনারগাঁ একটি মামলা দায়ের করেছেন।

মামলা বাদী নিহতের ভাই ওমর ফারুক জানান, তিনি জামপুর ইউনিয়নের মুছারচর গ্রামের শুক্কুর আলীর ছেলে, গত ১০ বছর আগে পাশর্^বর্তী সনমান্দি ইউনিয়নের ফতেপুর দড়িকান্দি গ্রামের নুরুজ্জামানের ছেলে আজিজুলের সঙ্গে পারিবারিকভাবে বিবাহ দেয়। বিবাহর পর তাদের মিথিলা (৮), অন্যন্যা আক্তার (৬) ও ৪ মাসের শরীফ নামে একটি শিশু ছেলেসহ তিনটি সন্তান জন্ম হয়। গত ৮ মাস যাবত আজিজুল নয়াপুর মৈষটেক এলাকায় গার্মেন্টস কর্মী নিলুফা নামে এক নারী জড়িয়ে পড়ে। স্বামী আজিজুলের পরকীয়ার বিষয়টি স্ত্রী মারজিয়া জেনে যাওয়ার বাঁধা দেয়। এরপর থেকে প্রায় ৭-৮ মাস যাবত স্বামী ও স্ত্রীর দুজনের মধ্যে ঝগড়া শুরু হয়। এরই জের ধরে গত বৃহস্পতিবার রাতে মারজিয়াকে গলাটিপে শ^াসরোধ করে হত্যা করে ঘাতক আজিজুর পালিয়ে যায়।

এ ব্যাপারে সোনারগাঁ থানার অফিসার মোরশেদ আলম পিপিএম জানান, লাশ পোষ্ট পোস্টমর্টেমের জন্য জেলা হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। আসামীদের গ্রেফতারের জন্য অভিযান অব্যাহত রয়েছে।