স্ত্রীকে ফাকি দিয়ে শাশুরির দেয়া বাড়ি বিক্রি করে দ্বিতীয় বিয়ে অতপর !

0
754

আজকের সোনারগাঁওঃ সোনারগাঁয়ে মোবারক হোসেন নামের এক যুবক স্ত্রীকে ফাকি দিয়ে শাশুরির দেয়া বাড়ি বিক্রি করে দিতীয় বিয়ে করার প্রতিবাদ করায় প্রথম স্ত্রী রুমাকে মারধর করে গুরতর আহত করেছে । এ ব্যাপারে শনিবার দুপুরে সোনারগাঁ থানায় রুমা আক্তার বাদী হয়ে সোনারগাঁ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন । পুলিশ ও এলাকাবাসীর সুত্রে জানা গেছে হাবিবপুর এলাকার রবিউল এর মেয়ে রুমা আক্তারের ১৭ বছর আগে বিয়ে হয় পিরোজপুর এলাকার মৃত আশেক আলীর ছেলে মোবারকের সাথে । বিয়ের পর শাশুরি মমতাজ বেগম নিজের কন্যার সুখের জন্য মেয়ের জামাই মোবারকের নামে ৩ শতাংশ ভিটিবাড়ি কিনে দেয় দৈলরবাগ এলাকায় । পরকিয়ার জেরে সেই ভিটি বাড়ি বিক্রি করে মোবারক ১ সপ্তাহ আগে রুমাকে না জানিয়ে হাবিবপুর এলাকার নুরুল ইসলামের ছোট স্ত্রী কুলসুম বেগমের সহায়তায় দ্বিতীয় বিয়ে করে । দ্বিতীয় স্ত্রী সেতু আক্তারকে নিয়ে বানীনাথপুর এলাকার সুফিয়ার বাড়িতে ভারাটিয়া হিসাবে থাকতে শুরু করে । খবর পেয়ে রুমা আক্তার শনিবার সকাল ১০ টার সময় সেই ভাড়াটিয়া বাড়িতে গেলে কথা কাটাকাটির এক পর্যায় মোবারক , সেতু ও কুলসুম মিলে রুমার উপর হামলা চালিয়ে পিটিয়ে গুরতর আহত করে । আহত অবস্থায় রুমা আক্তারকে সোনারগাঁ হাসপাতালে ভর্তি করা হয় । পরে রুমা আকার বাদী হয়ে সোনারগাঁ থানায় অভিযোগ দায়ের করলে ঘটনাস্থল থেকে সোনারগাঁ থানার এ এস আই আহাদ সেতু ও কুলসুমকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে মোবারক পালিয়ে যায় । রুমা আক্তার জানায় তার স্বামী মোবারককে ফুসলিয়ে কুলসুম বেগম বাড়িবিক্রি করার টাকা থেকে ২০হাজার টাকা হাতিয়ে নিয়ে সেতুর সাথে বিয়ের ব্যবস্থা করে দেয় । তার প্রতিবাদ করতে গেলে তাকে মারধর করে আহত করে । এ ব্যাপারে সোনারগাঁ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোরশেদ আলম বলেন আমি থানার বাইরে আছি বিষয়টি আমার জানা নাই ।