যাত্রীবাহী বাস দোয়েলে হামলা ।। চাঁদাবাজ মোবারকের বিরুদ্ধে দ্রুত বিচার আইনে মামলা

0
1880

Untitled-02-Copy-150x150

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও উপজেলা মোগরাপাড়া বাস স্ট্যান্ড থেকে ঢাকা গুলিস্তান রুটে চলাচলরত দোয়েল পরিবহন কর্তৃপক্ষ দুর্ধর্ষ চাঁদাবাজ মোবারক হোসেনের দাবিকৃত ৫ লাখ টাকা চাঁদা না দেয়ায় যাত্রীবাহী বাসে হামলা ও চালককে পিটিয়ে আহত করেছে সন্ত্রাসীরা।
এ ঘটনায় গত বৃহস্পতিবার (৯ নভেম্বর) রাত সাড়ে ১১ টার দিকে দোয়েল লিমিটেড বাস সার্ভিসের এমডি গোলজার হোসেন ভূঁইয়া বাদি হয়ে সন্ত্রাসী মোবারক হোসেনসহ ৪ জনের নাম উল্লেখ করে দ্রুত বিচার আইনে বন্দর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।
বুধবার (৮ নভেম্বর) রাত ১০ টার দিকে পরিবহন চাঁদাবাজ মোবারক হোসেনের দাবিকৃত ৫ লাখ টাকা চাঁদা না দেয়ায় ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কের বন্দরের মদনপুর বাসষ্ট্যান্ডে যাত্রীবাহী বাসে হামলা ও চালক আবদুল মালেককে পিটিয়ে আহত করে।
দোয়েল লিমিটেড ব্যবস্থাপক নূরুজ্জামান মোল্লা জানান, বন্দর উপজেলা মদনপুর ইউনিয়নের লাউসার এলাকার ইদ্রিস আলীর ছেলে দুর্ধর্ষ পরিবহন চাঁদাবাজ মোবারক হোসেন বিভিন্ন মাধ্যম ও মোবাইল ফোনে দীর্ঘ দিন ধরে ৫ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে নানান হুমকি দমকি ও ভয়ভীতি দেখাচ্ছে। তার হুমকি ধমকি অব্যহত থাকলে এক পর্যায়ে তার দাবিকৃত চাঁদা দিতে অস্বীকৃতি জানানো হয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে সন্ত্রাসী মোবারক হোসেন।
বুধবার (৮ নভেম্বর) রাতে মোবারক তার সহযোগী সাইফুল খন্দকার, রহমতউল্লাহ, মামুনসহ ৫-৬ জন মিলে ঢাকা থেকে সোনারগাঁওয়ের উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসা (ঢাকা- মেট্টো-ব-১১-৫৪৫৪) যাত্রীবাহী বাস মদনপুর বাস স্ট্যান্ডে পৌছালে বাসের চালক আব্দুল মালেক গাড়ি থেকে রাস্তায় নামিয়ে বেধরক পিটিয়ে রক্তাক্ত জখম করে। এসময় যাত্রীরা এগিয়ে আসলে যাত্রীদের মারধর করে এবং গাড়ির ভাংচুর করে। এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার রাতে কোম্পানীর ব্যবস্থাপনা পরিচালক গোলজার হোসেন ভূঁইয়া বাদি হয়ে সন্ত্রাসী মোবারক হোসেন, সাইফুল খন্দকার, রহমতউল্লাহ ও মামুনকে আসামী করে দ্রুত বিচার আইনে মামলা দায়ের করেন।

বন্দর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবুল কালাম জানান, যাত্রীবাহী বাসের চালককে মারধরের ঘটনায় দ্রুত বিচার আইনে মামলা হয়েছে। ঘটনায় জড়িতদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।