সোনারগাঁয়ে দালাল চক্রের প্রতারণায় ভূমি মালিকদের মাথায় হাত ! ফ্রেস কম্পানির জমি ক্রয়ে হ-য-ব-র-ল কোটি টাকা দালালদের পকেটে

0
1329

Untitled-02-Copy-150x150

আজকের সোনারগাঁওঃ সোনারগাঁ উপজেলার বৈদ্যেরবাজার ইউনিয়নের আনন্দবাজার এলাকার আশে পাশের মৌজার জমির মালিকরা স্থানীয় দালালদের প্রতারণায় নিঃশ্ব । মেঘনা গ্রুপের ফ্রেস কোম্পানি আনন্দবাজার এলাকায় দালালদের মাধ্যমে জমি ক্রয় করে । দালাল চক্র ভুয়া দাতা দেখিয়ে কোম্পানির কাছে জমি বিক্রয় করাতে জমির প্রকৃত মালিকরা নিঃশ্ব। স্থানিয় ইলিয়াছ মোল্লা,মোঃ হোসেন,হাবিবুর রহমান বলেন, স্থাানীয় আব্দুল আলী মেম্বার (সাবেক),গাজী সফিক, হোসেন মেম্বার (সাবেক)সহ কয়েকজনে মিলে নরসুলদী মৌজায় আমাদের জমি ফ্রেস কোম্পানির কাছে ভুয়া দাতা হাজির করে রেজিঃ করে দেয় । আমারা আমাদের জায়গাঁ কোম্পানির কাছে বিক্রি করতে গেলে কোম্পানি বলে এই জায়গাতো আমরা ক্রয় করেছি । এক জায়গা কতবার ক্রয় করব । আমাদের বৈধ দলিল পত্র এবং সরকারী নামজারী করা থাকলেও আমাদের জমি ফ্রেস কোম্পানি নিচ্ছেনা । আমাদের মত শত শত লোকের জমি ভূয়া দাতা সাজিয়ে রেজিঃ করে দিয়েছে দালাল চক্র । আমরা এখন অসহায় অবস্থায় স্থানীয় চেয়ারম্যান সহ প্রশাসনের সহযোগিতা চাইছি । এভাবে এক জনের জমি যদি আরেকজন নিয়ে যায় তবে আমরা অসহায় গরিবরা অধিকার বঞ্চিত হয়ে পথের ফকির হতে হবে । এতটুকু জমি ছারা আমাদের আর কিছু নাই । ক্ষোভের সহিত তারা আরও জানায় ফ্রেস কোম্পানি দালাল চক্রের বিরুদ্ধে কেন ব্যবস্থা নেয়না কেন আমাদের অধিকার আমাদের ফিরিয়ে দেয়না । দালালরা ভুয়া দাতা সাজিয়ে অন্যের জমি বিক্রয় করে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে আর আমাদের মাথায় হাত দিয়ে হায় হায় ছারা কোন কিছুই করতে পারছিনা । এ ব্যাপারে আনন্দবাজার এলাকার দামদরদী গ্রামের শাহাদাৎ হোসেন ( হোসেন মেম্বার ) বলেন , আমি এসবের মধ্যে জড়িতনা এসব করেছে অঅব্দুল আলী মেম্বার ও গাজী সফিক । পরে তিনি আবার বলেন আসলে এই এলাকার কেউ জড়িত না ফ্রেস কোম্পানির জন্য জমি ক্রয় ,বালু ভরাট এসবই করেছে পিরোজপুর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও বিএনপি নেতা রফিকুল ইসলাম (সাবেক বিডিআর) । এ ব্যাপার বৈদ্যেরবাজার ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ডাঃ আঃ রউফ বলেন ভুক্তভোগী অনেকেই আমার কাছে এসেছে আমি ফ্রেসকোম্পানির সাথে আলোচনা করে যথাসাধ্য চেষ্টা করব তাদের নেয্য দাবী আদায়ের জন্য ।