সোনারগাঁয়ে জমির আলীর সম্পত্তি বেদখলের ভয় ! দখলের পায়তারায়একটি প্রভাবশালী কুচক্রি মহল

0
781

নারারয়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে একটি প্রভাবশালী কুচক্রি মহলের বিরুদ্ধে প্রায় ৩ কোট টাকার সম্পত্তি দখলের অভিযোগ করেছেন ভুক্তভোগী জমির আলী।বে-আইনিভাবে জোড়পূর্বক সম্পত্তি দখলের হুমকিতে আতঙ্কিত জমির আলী ও তার পরিবার।
জানা যায়,উপজেলার পিরোজপুর ইউনিয়নের চর রমজান সোনাউল্লাহ মৌজাস্থিত ৩৪৫ খতিয়ানভুক্ত আরএস ১৮১৫-১৬, ১৮৭৩-৭৪ নং দাগে মোট ৬৭ শতাংশ জমি ও বাড়ী বংশানুক্রমে প্রায় ২ শতাধিক বছর যাবত ভোগ দখল করে আসছে।ভুক্তভোগী জমির আলী কতক সম্পত্তি ক্রয় ও উত্তাধীকার সুত্রে ৬৭ শতাংশের মালিক ও স্বত্ববান নিয়ত হয়ে দীর্ঘদিন যাবত ডকইয়ার্ড,৩০০ ফুট দৈর্ঘ্য বিশিষ্ট গোডাউন ও ওয়ার্কসপ নির্মাণ করে শান্তিপুর্ণভাবে ভোগদখল করছেন।তাদের অজ্ঞাতসারে আশরাফুল ইসলাম, কুলসুম,খাদিজা ও আফসানা আক্তারকে মালিক ও ওয়ারিশ দেখিয়ে একটি কুচক্রিমহল ভুয়া-দলিলের মাধ্যমে নামজারি (৭৯২৩/১৫-১৬) করে প্রায় ৩ কোটি টাকা মূল্যের ৩২ শতাংশ ভুমি দখলের ষড়যন্ত্র করে যাচ্ছে।জানতে পেয়ে জমির আলী উক্ত নামজারির বিরুদ্ধে সোনারগাঁও সহকারী কমিশনার ( ভূমি ) এর কার্যালয়ে বিবিধ মামলা ( ৪২১/১৭ ) দায়ের করেন।বিজ্ঞ আদালত বাদীর ( জমির আলী ) সম্পূর্ণ কাগজপত্রাদি পর্যালোচনা করে বাদীর মালিকানাস্বত্ত নিশ্চিত হয়ে নামজারি কর্তনের নির্দেশ দিয়ে আরএস মূল খতিয়ানে ফেরত নেওয়ার নির্দেশ দেন।
ভূক্তভোগী জমির আলি বলেন, আমার বাপদাদার সম্পত্তি বিজ্ঞ সহকারী কশিনার ( ভূমি ) বিবাদীগণকে বে-আইনিভাবে ১৫/১১/১৭ ইং তারিখে পূণঃনামজারির পরামর্শ দিলে তারা নামজারির জন্য পূণঃরায় আবেদন ( ৮৬৫/১৭-১৮ ) করে।তিনি আরো বলেন, আমরা নিজ দখলীয় সম্পত্তি নিজ নামে নামজারি করতে গেলে ২৯/১১/১৭ তারিখে সন্ত্রাসী প্রকৃতির লোকজনের সহায়তায় আমাদের হুমকি প্রদান করে।
তাদের ভয়ে জমির আলী গত ২২ নভেম্বরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা,সহকারী কমিশনার (ভূমি ) ও সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন ভূমি কর্মকর্তা বরাবরে (৮৬৫/১৭-১৮ ) নামজারি আবেদনটি পূঙ্খানুভাবে যাচাই বাছাই করে ভূয়া দলিলের পক্ষে নামজারি না দেয়ার আবেদন জানিয়েছেন।এছাড়াও সিনিয়র সহকারী জজ সোনারগাঁ আদালত,নারায়ণগঞ্জ এ দেওয়ানী মোকদ্দমা ( ২৩৪/১৭ )দায়ের করেন।
সহকারী কমিশনার ( ভূমি ) বিএম রুহূল আমিন রিমন জানান,প্রমানিত বৈধ দলিলপত্র ছাড়া কাউকেই নামজারি দেয়া হবে না ।