সোনারগাঁ নৌকার মনোনয়ন কে পাচ্ছে দিশেহারা তৃমূল নেতাকর্মীদের বড় প্রশ্ন ! যে যারমত প্রচারনায় ব্যস্ত মনোনয়ন প্রত্যাশী নেতারা

0
1642

আজকের সোনারগাঁওঃ নারায়ণগঞ্জ-৩ সোনারগাঁ রাজধানী ঢাকার নিকটবর্তী হওয়াতে আসনটি রাজনৈতিক ভাবে বেশ গুরুত্ব বহনকারী । তাছারা ঢাকা চট্টগ্রাম মহাসড়ক ঘেষা এই অঞ্চলটি বিভিন্ন আন্দোলন সংগ্রামে সাড়া ফেলানোর একটি পয়েন্ট হিসাবে আওয়ামীলীগ, বিএনপি,জাতীয়পার্টি সহ সব রাজনৈতিক দল নিজেদের দখলে রাখার চেষ্টা করে থাকে । প্রকাশ্য বিষয় রাজনৈতিক মাঠে এখন সোনারগাঁ আওয়ামলীগ বিভক্ত । সোনারগাঁ আওয়ামীলীগের দায়িত্বশীল কয়েকজন রাজনৈতিক নেতার সাথে কথা বলে জানা গেছে সোনারগাঁয়ে আওয়ামীলীগ নেতাকর্মীদের বিভিন্ন ভাগে ভাগ করে রাজনীতি পরিচালনা করছে মনোনয়ন প্রত্যাশী ৭ জন আওয়ামলীগ নেতা । এ আসন থেকে যারা মনোনয়ন প্রত্যাশা করে সেই লক্ষে রাজনৈতিক মাঠে কাজ করছেন তারা হলেন,সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মোশারফ হোসেন, লন্ডন প্রবাসী আওয়ামলীগ নেতা ইঞ্জিনিয়ার শফিকুল ইসলাম, সোনারগাঁ উপজেলা আওয়ামলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মাহফুজুর রহমান কালাম, সাবেক এমপি আব্দুল্লাহ আল কায়সার ,ডাঃ আবুজাফর চৌধুরী বীরু, এইচ এম মাসুদ দুলাল,অনোয়ারুল কবির। আলাদাভাবে নেতৃত্ব দিলেও এসকল নেতাদের দাবী সাংগঠনিক ভাবে সোনারগাঁ আওয়ামলীগ শক্তিশালী রয়েছে । মনোনয়ন প্রত্যাশী প্রত্যেক নেতা এবং তাদের অনুসারী নেতাকর্মীদের বিশেষ বিশেষ ধারনামতে প্রত্যেকেই মনোনয়ন দৌড়ে এগিয়ে আছে বলে রাজনৈতিক মাঠে দাবী করা হচ্ছে । যেমনটা করছে মোশারফ হোসেন সমর্থক নেতাকর্মীরা তাদের মতে গত নির্বাচনে আওয়ামীলীগ থেকে মনোনয়ন পেয়েছিলেন মোশারফ হোসেন । তার হাত থেকে স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মনোনয়ন তুলে নিয়ে মহাজোটের প্রার্থীকে দিয়েছেন সরকারগঠনের সুবিধার্থে । আগামী নির্বাচনে শেখ হাসিনা পেয়ে হারানো এই নেতার দিকে বিশেষ দৃষ্টিতে দেখবেন এমনটাই প্রত্যাশা মোশারফ হোসেন ও তার সমর্থকদের । অন্যদিকে লন্ডন প্রবাসী আওয়ামীলীগ নেতা ইঞ্জিনিয়ার শফিকুল ইসলাম দীর্ঘদিন যাবত লন্ডনে অবস্থান করে আওয়ামলীগের সাথে যুক্ত থেকে সাংগঠনিক কার্যক্রম চালিয়ে আওয়ামীলীগের হাই প্রোফাইলের নেতাদের সাথে সখ্যতা গড়ে উঠে। হাই প্রোফাইল নেতাদের পরামর্শে তিনি এখন স্থানীয় নেতাকর্মীদের পাশাপাশি এলাকায় সময় দিতে লন্ডন ছেড়ে এলাকায় ফিরেছেন নিয়েছেন মানুষের পাশে থাকারমত নানা কর্মসূচি। জননেত্রী শেখ হাসিনা তরুন এবং ক্লীন ইমেজের যোগ্য নেতাদের খুজে বের করে আগামী সংসদ নির্বাচনে মনোনয়ন দিবেন। সেই হিসাবে সোনারগাঁ থেকে নৌকার মনোনয়ন ইঞ্জিনিয়ার শফিকুল ইসলামের হাতেই আসছে এমনটাই মনে করছে এই নেতা ও তার সমর্থকরা । বেশীরভাগ তৃনমূল নেতাকর্মীদের প্রিয় নেতা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মাহফুজুর রহমান কালাম এমন দাবী আওয়ামলীগের তৃনমুল নেতাকর্মীদের। দীর্ঘদিন মাঠের রাজনীতেতে দখল থাকা এই নেতা কেন্দ্রীয় আওয়ামলীগের বিশেষ ক্ষমতাধর এক নেতার সাথে বেশ সখ্যতা থাকায় তৃনমুল নেতাকর্মীরা নিশ্চিতভাবেই বলছে আগামী নির্বাচনে নৌকা থাকছে মাহফুজুর রহমান কালামের হাতেই । যুবলীগ,ছাত্রলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ সহ একের পর এক আওয়ামীলীগের অঙ্গসংগঠনের উপজেলা কমিটি গঠন করে বেশ চাঙ্গা মনোভাব নিয়ে মাঠ চষে বেরাচ্ছে আব্্দুল্লাহ আল কায়সার। উপজেলা সংগঠনে নিজেদের পদপদবী তৈরী করতে তৃনমুল নেতাকর্মীরা মৌমাছির মত ভির করছে এই নেতার পিছনে । এই পদপদবী চাওয়া নেতাকর্মীদের পদচারনায় উৎফুল্ল হয়ে এবং বিএনপির অধ্যাপক রেজাউল করিমকে ব্যপক ভোটের ব্যববধানে হারানোর ইতিহাস স্মরন করে আগামী নির্বাচনে মনোনয়ন তিনিই পাচ্ছেন এমনটা মনেকরছেন এই নেতা ও তার সমর্থকরা । পিছিয়ে নেই ডাঃ আবুজাফর চৌধুরী বীরু তিনি বাংলাদেশ স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের সাংগঠনিক সম্পাদক । সেই হিসাবে জেলা আওয়ামীলীগে গুরত্বপূর্ণ পদ পেয়ে উজ্জিবিত নিজের গ্রহনযোগ্যতার প্রমান হিসাবে এই পদায়ন তার অনুসারী নেতাকর্মীরা মনোনয়ন পাওয়ার ইঙ্গিত মনে করছে । কেন্দ্রীয় উপকমিটির সাবেক সহ সম্পাদক এইচ এম মাসুদ দুলাল কেন্দ্রীয় নেতাকর্মীদের সাথে বিশেষ সখ্যতা আছে বলে মনোনয়ন তার হাতেই আসবে বলে কিছুদিন সোনারগাঁয়ে দাপিয়ে বেড়িয়ে এখন গাঢাকা দিয়েছেন । আনোয়ারুল কবির সুসময়ের কোকিল হিসাবে আর্বিভূত হয়ে নিজের চাচা প্রয়াত আব্দুল হাই এর নাম ভাঙ্গিয়ে রাজনৈতিক মাঠ গরম করতে চেয়ে ব্যর্থ হয়ে ঝিমিয়ে পড়েছে তবুও তিনিই আগামী নির্বচনে আওয়ামলীগ থেকে মনোনয়ন পাওয়ার দাবী করছে । আসলে কে পাচ্ছে আগামী নির্বাচনে আওয়ামীলীগ থেকে মনোনয়ন কার নেতৃত্বে চললে আমরা সঠিক নেতৃত্ব পাব এতসব ভাবনার অতলে গড়িয়ে সোনারগাঁ আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীরা দিশেহারা । এই দিশে হারা নেতাকর্মীদের মতামত কথাবার্তা থেকে উঠে এসেছে বিভক্তির নেতৃত্ব সোনারগাঁ আওয়ামীলীগের হালচিত্র । এমপি নয় কে পাবে নৌকার মনোনয়ন এই নিয়ে সোনারগাঁ এখন অলোচনা সমালোচনায় সরগরম । অবশেষে মহজোটের এমপি লিয়াকত হোসেন খোকাই কি এমপি থাকছেন এমনটাই প্রশ্ন সাধারণ মানুষের ।