সৌদী আরবের যুবতীদের স্বামী পেতে চাতক পাখির মত অপেক্ষা ! প্রধান বাধা পন প্রথা

0
1142

আজকের সোনারগাঁওঃ মধ্যপ্রাচ্যের মুসলিম রাষ্ট্র সৌদী আরব । নানা কারনে সারা বছর অলোচনায় থাকে বহিবিশ্বে । প্রতিনিয়ত দেশের আইন সংশোধন বিয়োজন সংযোজন হয়েই চলেছে । নারীদের মর্যাদা রক্ষায় স্যেদী আরবে রয়েছে বিয়ের সময় নারীদের দেওয়া বিশেষ “ পন ” প্রথা । কিন্তু সময়ের আবর্তে নারীদের মর্যাদা দিতে যে পন প্রথা সেটা এখন মেয়ের বাপের পনবানিজ্যে রূপ নিয়েছে দেশটিতে । আর এ কারনে সঠিক সময় যুবক যুবতিদের বিয়ে হচ্ছে না । অপব্যবহার হচ্ছে পন প্রথাটির । বিশেষ সুত্রে জানা গেছে সৌদী আরবের যুবকরা সঠিক সময়ের অনেক পরেও বিয়ে করতে পারছেনা । অন্য দিকে একই চিত্র যুবতীদের ক্ষেত্রেও । বিবাহযোগ্য মেয়েরা পাচ্ছেনা সঠিক সময়ের বর । সৌদী আরবে পিতা হলেন সর্বময় অভিভাবক তাদের কথার বাইরে কোন কিছুই হয়না । দেশটিতে প্রচলন রয়েছে বিয়ের সময় বরের পক্ষ থেকে কনের বাবাকে কমপক্ষে ১ লাখ রিয়াল এবং মেয়েকে ২০ থেকে ৫০ ভরি ওজনের সোনার গহনা দিতে হয় । আর এখানেই যত সমস্যা । একটি সৌদী যুবক ২৫ থেকে ৩০ বছরে অর্থ উপার্জন করতে শুরু করে । সেই যুবক অর্থ উপার্জন করে নিজের পায়ে দাড়িয়ে উল্লেখিত নগদ অর্থ এবং সোনারগহনা জোগার করতে জীবনের অনেকটা সময় চলে যায় । এদিকে যুবতীদের বিয়ের বয়স পার হতে থাকে । সৌদী আরবে ৩৬ থেকে ৪০ বছরে স্বামী সংসার পায় সৌদী নারীরা । চলবে…..