সন্ত্রাসী হামলায় সুলতান কনস্ট্রাকশন লিঃ এর কর্মচারী নাজিমউদ্দিন গুরুতর আহত ॥ থানায় মামলা

0
433

পাওনা টাকা চাইতে গিয়ে সন্ত্রাসী রিয়াদ হোসেন রনি বাহিনীর হামলার শিকার হয়েছে সুলতান কন্ট্রাকশন লিঃ এর কর্মচারী নাজিমউদ্দিন।
এ ঘটনায় সুলতান কনস্ট্রাকশন লিঃ এর ম্যানেজার আনোয়ার হোসেন বাদী হয়ে গত শনিবার রাত ১১টার দিকের সোনারগাঁও থানায় নতুন টিপরদী এলাকার সেলিম মিয়ার ছেলে সন্ত্রাসী রিয়াদ হোসেন রনিকে প্রধান আসামী করে এবং তার সহযোগী নতুন টিপরদী এলাকার সফরদ্দিনের ছেলে হুমায়ন, তোতা মিয়ার ছেলে আলমগীর, ছোট কাজিরগাঁও এলাকার বসু মিয়ার ছেলে আরিফ, দিঘীরপাড় এলাকার মজিবুরের ছেলে মাহবুব, ফুলবাড়িয়া এলাকার সৈয়দ হোসেনের ছেলে রকি, ফয়সালসহ ৮জনের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করেন।

মামলার বিবরনে এজাহার সূত্রে জানা গেছে, নাজিমউদ্দিন মোগরাপাড়া চৌরাস্তায় অবস্থিত সুলতান কনস্ট্রাকশনে কাজ করার পাশাপাশি বিকাশ এজন্ট হিসাবে কাজ করে থাকে। বিকাশে লেনদেন হওয়া টাকা ফেরত চাইতে গিয়ে সন্ত্রাসী রনির সহযোগী বন্দর এলাকার নাসিরের ছেলে সোনারগাঁও পৌরসভার গোয়ালদী এলাকায় ভাড়াটিয়া সালমান এর আক্রোশের শিকার হয়। গত শনিবার সকাল ১১ টার দিকে নাজিমউদ্দিন বিকাশের টাকা ফেরত আনতে সালমানের কাছে যায়। এ সময় পাওনা টাকা ফেরত না দিয়ে সন্ত্রাসী রিয়াদ হোসেন রনি ও তার সহযোগীরা নাজিমউদ্দিনকে গোয়ালদী এলাকায় থেকে ধরে আদমপুর এলাকায় নিয়ে যায়। পরে রিয়াদ হোসেন রনির নেতৃত্বে সন্ত্রাসীরা লোহার রড, হকি ষ্টিক দিয়ে এলোপাতারিভাবে পিটিয়ে মারাত্মক ভাবে আহত নিজামউদ্দিনকে। এ সময় তার ডাক চিৎকারে এলাকার লোকজন এগিয়ে এলে নাজিমউদ্দিনকে ফেলে পালিয়ে যায় সন্ত্রাসীরা। এলাকাবাসী গুরুতর আহত অবস্থায় নাজিমউদ্দিনকে উদ্ধার করে সোনারগাঁও স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। শারিরিক অবস্থার অবনতী হলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করে। সন্ত্রাসী রিয়াদ হোসেন রনি ছাত্রদল করতো এবং বিএনপি নেতা ও সোনারগাঁও পৌরসভার কাউন্সিলর আব্দুল মোতালেবের ভাগিনা।
এ ব্যাপারে সোনারগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোরশেদ আলম পিপিএম বলেন এ ঘটনায় থানায় মামলা নেয়া হয়েছে। আসামীদের ধরার চেষ্ট চলছে ।

উত্তর দিন