আনন্দবাজার এলাকা ঘেষে মেঘনা নদী থেকে বালু কাটা বন্ধ হচ্ছেনা ॥ মেম্বার পুত্র রকির খুটির ঝোর কোথায় !

0
1170

কিছুতেই থামছেনা অবৈধ ভালু কাটা । মাঝে মধ্যে সোনারগাঁ থানা পুলিশ অভিযান চালালেও ধরতে পারছেনা অবৈধভাবে বালু উত্তোলনকারীদের । সোমবার দুপুরে সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে বৈদ্যেরবাজার ইউনিয়নের ২ নং ওয়ার্ডের মেম্বার ইসমাইল হোসেনের ছেলে রকি শক্তিশালী ডেজার ও বাল্কহেড দ্বারা মেঘনানদী থেকে অবৈধভাবে বালু কাটছে । এলাকাবাসী খবর পেয়ে ঘটনা স্থলে গিয়ে মুল হোতা রকিকে আটকের চেষ্টা করলে রকি ও তার সহযোগিরা পালিয়ে যায় । এ দিকে বিক্ষিপ্ত আনন্দবাজার এলাকাবাসী জানায় জীবন দিবে তবু আমাদের এলাকার বালু কেটে নিজেদের ভিটেমাটি বিলিন হতে দিবনা। পরে ড্রেজার ও বাল্কহেডে থাকা কর্মচারীদের বাধা দেয় এলাকাবাসী । বাধা না মানলে তাদে উপর হামলা করে পিটিয়ে বন্ধ করে বালু কাটা । বিক্ষিপ্ত এলাকাবাসী জানায় ইসমাইল মেম্বারের ছেলে রকি দীর্ঘদিন যাবত অবৈধ ভাবে আনন্দবাজার এলাকার পার ঘেষে বালু কেটে বৈদ্যের বাজার ইউনিয়নের   কয়েকটি গ্রামকে হুমকির মুখে ফেলছে । পুলিশ কয়েকবার রকিকে গ্রেফতার করে টাকার বিনিময়ে ছেরে দিয়েছে । ছারা পাওয়ার পরে সে বেপরোয়া ভাবে করে যাচ্ছে এসব অপকর্ম। তারা জানায় ইসমাইল মেম্বার একজন নারী লোভী ও মাদকসেবী এবং তার পুত্র রকি একজন মাদক ব্যবসায়ী । তাদের অপকর্মে বাধা দেওয়ার মত তার এলাকায় কেউ নেই কেউ বাধা দিলে  হামলা ও মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানী করে । এব্যপারে বৈদ্যেরবাজার ইউনিয়ন পরিষদের ২ নং ওয়ার্ডের মেম্বার ইসমাইল হোসেন মোবাইল ফোনে বলেন, আমরা যথাযথ কতৃপক্ষের অনুমতি নিয়ে মেঘনানদী থেকে বালু কাটতেছি । আমাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা প্রচারনা চালানো হচ্ছে । তাছারা আমাদের কেউ বাধা দেয়নী এবং বাধা দেওয়ার ক্ষমতা নেই । এব্যাপারে সোনারগাঁ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাহিনুর ইসলাম বলেন, এভাবে বালু কাটার অনুমতি কাউকে দেওয়া হয়নী । অবশ্যই তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে ।