সোনারগাঁওয়ে সন্ত্রাসী হামলায় স্কুল ছাত্রীসহ আহত-১১

0
1287

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও উপজেলার পিরোজপুর ইউনিয়নের দুধঘাটা গ্রামে বাড়ির সীমানা বিরোধের জের ধরে সন্ত্রাসী মহিউদ্দিন বাহিনীর হামলায় নারী-পুরুষ স্কুল ছাত্রীসহ ১১জন আহত হয়েছে। আহতরা হলেন: সুরিয়া আক্তার (২৫), ঝর্ণা আক্তার (১৪), জাকির হোসেন (৪৫), আক্তার হোসেন (৪০), মামুন (২৯), রহিমা আক্তার (৩৫), স্কুল ছাত্রী বন্যা (১৫), রেনু আক্তার (৪০), তাজুল ইসলাম (৪০), সাহিদা বেগম (৬৫) ও রিনা বেগম (৪৫) ১১জন।
আশঙ্কাজন অবস্থায় মারাত্মক আহত সুরিয়া আক্তার ও ঝর্ণা আক্তারকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয় এবং আহত অন্যরা স্থানীয় উপজেলা স্ব্যাস্থ কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। গত মঙ্গলবার সকাল ১০টার দিকে এ সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটে।
এ ব্যাপারে আওলাদ হোসেন বাদি হয়ে সন্ত্রাসী মহিউদ্দিন ভূঁইয়া, খবিরউদ্দিন, আসাদুল, ফারুকসহ ১০জনকে আসামী করে সোনারগাঁও থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছে।
সরেজমিনে গিয়ে জানা গেছে, গত ১৪-১৫ বছর যাবত দিনমজুর মোহাম্মদ আলীর সঙ্গে ভূমিদস্যূ সন্ত্রাসী মহিউদ্দিনের বাড়ির সীমানা নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। গত মঙ্গলবার সন্ত্রাসী মহিউদ্দিনের নেতৃত্বে ২০-২৫জনের একদল সন্ত্রাসী পরিকল্পিতভাবে দেশীয় ধারালো রামদা, চাপাতি, লোহাররড, হকিস্টি ও বিভিন্ন লাঠিসোটা নিয়ে অর্তকিৎভাবে দিনমজুর মোহাম্মদ আলীর বাড়িতে গিয়ে হামলা চালায়। এ সময় সন্ত্রাসীরা বাড়িঘর ভাংচুর করে জায়গা দখল করার চেষ্টা করে। এতে তাদের বাধা দিলে সন্ত্রাসীদের হাতে থাকা ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাতারিভাবে কুপিয়ে সুরিয়া আক্তার, ঝর্ণা আক্তার, জাকির হোসেন, আক্তার হোসেন, মামুন, রহিমা আক্তার, স্কুল ছাত্রী বন্যা, রেনু আক্তার, তাজুল ইসলাম, সাহিদা বেগম ও রিনা বেগম ১১জনকে মারাত্মকভাবে রক্তাক্ত জখম করে।
এলাকাবাসীরা জানান, মহিউদ্দিন ভূঁইয়া এলাকার নিরীহ মানুষের উপর জুলুম অত্যাচার, জোর পূর্বব জমি দখলসহ চিহ্নিত সন্ত্রাসী ও মামলাবাজ হিসেবে পরিচিত।
এ ব্যাপারে সোনারগাঁও থানার অফিসার ইনচার্জ মো. মোরশেদ আলম জানান, অভিযোগ পেয়েছি। ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে এবং মামলার প্রস্তুতি চলছে।