শেখ হাসিনার চলার পথের, সাথী হউন আপনিও…দীপক কুমার বনিক (দীপু)

0
1810

১৯৮১ সালের ১৭ মে, কোন রৌদ্রজ্জ্বল দিন ছিলনা। ঝড়ঝঞ্জাময় দিনে মাতৃসম নেত্রীর আগমন হয়েছিল এদেশে। বাংলা মা যেন আনন্দাশ্রু ঢালছিল অঝোর ধারায় তার সন্তানকে কাছে পেয়ে। ঝড়বৃষ্টি উপেক্ষা করে লাখোলাখো জনতা, সেদিন ছুটে গিয়েছিল নেত্রীকে স্বাগত জানাতে। বাবা মা ভাই ভাবী সকলকে হারিয়ে, প্রানপ্রিয় বাংলাকে লাখো শহিদের স্বপ্নের সোনার বাংলা হিসাবে গড়তে… ছুটে এসেছিলেন দেশেরটানে, সকল রক্তচক্ষুকে উপেক্ষা করে। শত প্রতিকূলতার মধ্যেও শেখ হাসিনা দেশকে নিয়ে যাচ্ছেন লাখো শহিদের স্বপ্ন পানে। যতদিন শেখ হাসিনার হাতে দেশ, পথ হারাবেনা বাংলাদেশ। স্বপ্ন পুরনের পথচলা, চলমান থাকুক অনন্তকাল। শেখ হাসিনার চলার পথের, সাথী হউন আপনিও। ১৯৮১ সালের ১৭ মে। তুমি না আসলে, বিশ্বের দরবারে বাংলাদেশ মাথা উঁচু করে দাড়াতে পারত না। তুমি না আসলে, অর্থনৈতিক সাফল্য পেতোনা বাংলাদেশ। তুমি না আসলে, খাদ্যে উদ্বৃত্তের দেশ হত না বাংলাদেশ। তুমি না আসলে, শিক্ষার মানোন্নয়ন হত না বাংলাদেশে। তুমি না আসলে, ফ্লাইওভার এর নগরী হত না ঢাকা। যোগাযোগ খাতের ব্যাপক উন্নতি হত না দেশজুড়ে। তুমি এসেছিলে বলেই, যুদ্ধাপরাধীর বিচার হচ্ছে। তুমি এসেছিলে বলেই, বাংলাদেশের বিদ্যুৎ সমস্যা সমাধান হচ্ছে। তুমি এসেছিলে বলেই, জঙ্গি উৎখাত হচ্ছে। তুমি এসেছিলে বলেই, মুক্তিযোদ্ধারা রাষ্ট্রীয় সম্মান পাচ্ছে। তুমি এসেছিলে বলেই, আজ নিন্ম মধ্যম আয়ের দেশ হয়েছে। তুমিই পারবে দেশকে উন্নত রাষ্ট্রে পরিনত করতে। সব হারানোর বেদনা বুকে নিয়ে, দুখী মানুষের মুখে হাসি ফোটাতে তুমি এসেছিলে। রক্ত চক্ষু উপেক্ষা করে, অধিকার হারা মানুষের প্রাপ্য ফিরিয়ে দিতে তুমি এসেছিলে। মৃত্যুভয়কে তুচ্ছ করে, মুক্তির চেতনা পূনপ্রতিষ্ঠায় তুমি এসেছিলে। জাতির কলঙ্কমোচনে তুমি এসেছিলে। জাতির দায়মুক্তি দিতে তুমি এসেছিলে। শহীদের আত্মার শান্তি দিতে তুমি এসেছিলে। অন্ধকার থেকে আলোর পথে নিতে তুমি এসেছিলে। জয়তু হে নেত্রী, জয়তু।