জলাবদ্ধতা ও জোঁকের ভয়ে ধান নিয়ে বিপাকে গোপালগঞ্জের চাষিরা

0
394

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি,গোপালগঞ্জের মুকসুদপুর উপজেলায় জলাবদ্ধ বিল লওখণ্ডা পাথারে জোঁকের আক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় কয়েক ৫ শ’ বিঘা জমির ধান নিয়ে বিপাকে পড়েছে চাষিরা।
বৃষ্টিতে জলাবদ্ধতার কারণে মুকসুদপুর উপজেলার গোহালা ইউনিয়নের পূর্ব লখন্ডা পাথারের ধান প্রায় তলিয়ে গেছে। অপরিকল্পিভাবে রাস্তা নির্মাণ ও তেলিকান্দার খাল ভরাট হয়ে যাওয়ায় এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে বলে চাষিরা জানান।
চাষিরা পানির মধ্যে ধান কাটতে নামলেই জোকে আক্রমণ করে। এছাড়া ওই পাথারের পানি পচে গেছে। পাথারে নামলেই শরীরে চুলকানি শুরু হয়, ফলে ধানকাটা শ্রমিক ধান না কেটেই পালিয়ে যাচ্ছে।
লওখণ্ডা গ্রামের চাষি মিন্টু কাজী বলেন, পাথারের পানি পচে গেছে। এখানে নামলেই জোঁক লাগে। পচা পানিতে গা চুলকায়। স্থানীয় শ্রমিকরা তো এখানে নামেই না, দূরের শ্রমিকরা কাজ শুরু করলেও পালিয়ে যায়।
পূর্ব লওখণ্ডা গ্রামের চাষি হান্নান শেখ, মোস্তফা মিনাসহ আরও অনেকের সঙ্গে কথা বললে তারাও জোঁক ও পচা পানির সমস্যার কথা জানান।
পূর্ব লখন্ডা গ্রামের চাষি হান্নান শেখ, দুলু কাজী, মোস্তফা মিনা ও রশিদ মিনা বলেন, তেলিকান্দির খাল খনন করা হলে আমরা এ সমস্যা থেকে মুক্তি পাব। এছাড়া ৭শ’ থেকে ৮ শ’ মিটার ড্রেন নির্মাণ করে পাথার থেকে গোহালা খালে সংযোগ করে দেয়া হলেও আমাদের পূর্ব লখন্ডা পাথারে জলাবদ্ধা থাকবেনা। ধান নিয়ে এ দুর্ভোগ থেকে রক্ষা পাবো।
গোপালগঞ্জ পাউবোর নির্বাহী প্রকৌশলী মো. শাফি উদ্দিন বলেন, জলাবদ্ধতা নিরসনে বড় ধরনের খাল খনন বা অন্য কোনো প্রকল্প গ্রহণের প্রয়োজন হলে আমরা সম্ভাব্যতা যাচাই করে ব্যবস্থা নিতে পারি।