নরসিংদীর পলাশে র‌্যাবের সাথে গুলি বিনিময়কালে শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী নিহত।

0
783

 গত ০৩ মে ২০১৮ তারিখে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী র‌্যাব ফোর্সেস সদর দপ্তরে র‌্যাবের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর বিশেষ দরবারে জঙ্গী বিরোধী কার্যক্রমে র‌্যাবের ভূমিকার প্রশংসা করেন এবং মাদক নির্মূলে অভিযান জোরদার করার জন্য র‌্যাব ফোর্সেসকে নির্দেশনা প্রদান করেন। ফলশ্রুতিতে র‌্যাব মাদকের বিরুদ্ধে সাড়াশি অভিযান পরিচালনা শুরু করে। সর্বশেষ গত ২০ মে ২০১৮ তারিখে ঘোষিত ‘‘চলো যাই যুদ্ধে, মাদকের বিরুদ্ধে’’ স্লোগানে মাদক বিরোধী জনসচেতনতার মাধ্যমে র‌্যাব দেশব্যাপী মাদক বিরোধী অভিযান আরো জোরদার করে।

 এরই ধারাবাহিকতায় মাদক বিরোধী অভিযানের অংশ হিসেবে র‌্যাব-১১ এর একটি আভিযানিক দল অদ্য ২১ মে ২০১৮ তারিখ ভোর ০৬৩০ ঘটিকায় নরসিংদী জেলার পলাশ থানাধীন ঘোড়াশাল খালিশকারটেক এলাকায় নরসিংদী জেলার মাদকের মহাজন খ্যাত ইমান আলীর মাদকের স্পটে মাদক ব্যবসায়ীদের গ্রেফতার ও মাদক উদ্ধারে অভিযান চালায় । বাসায় তল্লাশী করে ইমান আলীকে না পেয়ে ফেরার পথে রাস্তা থেকে বাসার গলির সম্মুখে বিপরীত দিক থেকে মোটর সাইকেলে করে আসা ০৩ জন আরোহী র‌্যাবকে দেখে মোটর সাইকেল থেকে দ্রুত নেমে র‌্যাবকে লক্ষ্য করে এলোপাতাড়ি গুলি ছুড়ে। র‌্যাবও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি ছুড়ে। প্রায় ৫-৬ মিনিট গোলাগুলি বিনিময়ের এক পর্যায়ে দুইজন আরোহী পালিয়ে গেলেও একজন রাস্তা সংলগ্ন মাঠের এক পার্শ্বে মুমূর্ষু অবস্থায় পড়ে থাকে। ঘটনাস্থল হতে তল্লাশী করে ০২ রাউন্ড গুলিভর্তি ম্যাগাজিনসহ বিদেশী পিস্তল, ১০০০ পিস ইয়াবা ও মাদক ব্যবসায় ব্যবহৃত ০১টি মোটর সাইকেল উদ্ধার করা হয়। মাদক ব্যবসায়ীদের গুলিতে র‌্যাবের ০২ সদস্যও আহত হয়। মুমূর্ষ অবস্থায় আহত ব্যক্তিকে উদ্ধার করে দ্রুত পলাশ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নরসিংদীতে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার মৃত ঘোষনা করে।

থানা পুলিশ ও স্থানীয় লোকজনের শনাক্ত মতে নিহত ব্যক্তিই নরসিংদীর শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী ইমান আলী। তার বয়স আনুমানিক ৩২ বছর। ইমান আলীর বিরুদ্ধে নরসিংদী জেলার বিভিন্ন থানা, চুয়াডাঙ্গা জেলার জীবননগর থানা এবং চট্টগ্রামের শীতাকুন্ড থানায় ২টি হত্যা মামলা সহ মাদক আইনে মোট ১১টি মামলা রয়েছে । মাদক ব্যবসায়ী ইমান আলীর মা মমতাজ৥বুড়ি একজন তালিকাভুক্ত মাদক ব্যবসায়ী । দীর্ঘদিন ধরে ঘোড়াশাল রেলষ্টেশন সংলগ্ন খালিশাকারটেকের মাদক স্পটের নিয়ন্ত্রণ করে আসছিল এই ইমান আলী। ক্রমান্বয়ে ইমান আলীর মাদকের সাম্রাজ্য নরসিংদী জেলা ছাড়িয়ে নারায়ণগঞ্জ জেলা ও ঢাকার বিভিন্ন এলাকায় বিস্তার লাভ করে। কেবল মাদক ব্যবসায় নয়, সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের মাধ্যমেও এলাকায় সাধারণ মানুষকে জিম্মি করে রাখতো এই ইমান আলী। ২০১৫ সালের মার্চে পলাশে পুলিশের সোর্স দ্বীন ইসলামকে ডেকে নিয়ে মায়ের সামনে গলা কেটে লোমহর্ষকভাবে হত্যা করে চাঞ্চল্য সৃষ্টি করেছিল এই মাদক সম্রাট ইমান আলী। বর্ণিত ঘটনার প্রেক্ষিতে পরবর্তী আইনানুগ কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন।