আড়াইহাজারে গার্মেন্টকর্মীর মৃত্যু নিয়ে ধ্রুমজাল

0
193

আড়াইহাজার প্রতিনিধি
নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে রোকসানা আক্তার রুনা (২৭) নামে এক গামেন্টকর্মীর মৃত্যু নিয়ে ধ্রুমজালের সৃষ্টি হয়েছে। রুনা স্থানীয় মাহমুদপুর ইউপির কল্যানন্দী রগুনার্থপুর এলাকার মৃত কালু মিয়ার মেয়ে ও মারুয়াদী এলাকার পিতা অজ্ঞাত গোলজার হোসেনের স্ত্রী। তিনি স্থানীয় ফকিরা গামের্ন্টে কর্মরত ছিলেন। নিহতের পরিবারের দাবি তিনি হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে সোমবার রাতে মারা গেছেন। তবে ঘটনার পর স্বামী পালিয়ে গেছেন। নিহত রুনার প্রিতি (৬) নামে এক সন্তান রয়েছে। মঙ্গলবার বেলা ১২টার দিকে নিহতের পরিবার মরদেহ দাফনের প্রস্তুতি নিচ্ছিল। এমন সময় বাড়িতে পুলিশ হাজির হয়। নিহতের মা শুকুরি বেগম জানান, স্থানীয় ছোট বিনাইচর এলাকায় কাইয়ুমের বাড়িতে তিন বছর ধরে ভাড়াবাসায় বসবাস করছিল রুনা। ১০ দিন আগে তার মেয়ের সঙ্গে ফকিরা গার্মেন্টের গাড়ি চালক গোলজার হোসেনের দ্বিতীয় বিয়ে হয়। সোমবার রাত চারটার দিকে স্টোক হয়ে হঠ্যাৎ তার মৃত হয়। তিনি আরও বলেন, কেউ আমার মেয়েকে হত্যা করেনি।

কারোর বিরুদ্ধে আমার কোনো অভিযোগও নেই। এদিকে বাড়ির মালিক কাইয়ুম বলেন, স্বামী স্ত্রীর মধ্যে কোনো প্রকার ঝগড়াঝাটির ঘটনা ঘটেনি। আমার জানা মতে তারা সুখীই ছিল। এদিকে নিহতের ভাই কামাল বলেন, আমার বোন স্টোক জনিত কারণে মারা গেছেন। কারোর বিরুদ্ধে আমার কোনো অভিযোগ নেই। তিনি আরও বলেন, তাকে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে বলে যে কথা উঠেছে এটি সম্পূর্ণ গুজব ও মিথ্যা। আমাদের শক্রপক্ষের কেউ এ গুজব ছড়িয়েছেন। আমার বোনের মৃত্যুর ঘটনায় কারোর বিরুদ্ধে আমাদের অভিযোগ নেই।

আড়াইহাজার থানার ওসি নজরুল ইসলাম বলেন, নিহতের পরিবারের লোকজনকে জেলা পুলিশ ও জেলা প্রশাসকের কাছে পাঠানো হয়েছে। সেখান থেকে যে সিদ্ধান্ত হবে আমি পরবর্তীতে সেই মোতাবেকই ব্যবস্থা গ্রহণ করব।