জিন্নাহ চেয়ারম্যানের ভাগিনা মুন্না (নিলয়) বেপরোয়া !রামদা দিয়ে যুবককে কুপিয়ে গুরুতর আহত

0
926

সোনারগাঁও প্রতিনিধি ঃ নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে জমিজমা সংক্রান্ত পূর্বশত্রুতার জের ধরে নুরুজ্জামান নামে এক যুবককে কুপিয়ে গুরুতর আহত করেছে সনমানদী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান জাহিদ হাসান জিন্নাহর ভাগিনা মুন্না ওরফে নিলয় ও তার সহযোগীরা। গত সোমবার মোগরাপাড়া ইউনিয়নের সোনাখালির ছোট কৃষনার্দী মসজিদের সামনে এ ঘটনা ঘটে। গুরতর আহত অবস্থায় নুরুজ্জামানকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ব্যপারে আহতের ভাই রাসেল বাদী হয়ে সোনারগাঁ থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন।


অভিযোগে উল্লেখ করা হয়, জমিজমা নিয়ে বিরোধের জের ধরে দীর্ঘদিন যাবত শক্রতা পোষন করে আসছে মুন্নার পরিবার। পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে সোনাখালি এলকার দাঙ্গাবাজ মুন্না,তার ভাই মামুন তার পিতা খোরশেদ আলম সহ মুন্নার সহযোগীরা রামদা ,কাঠের লাঠি, বাশের লাঠি নিয়ে একই এলাকার শাহলম ও তার ছেলে নুরুজ্জামানের পথরোধ করে অতর্কিত হামলা করে।

লাঠি দিয়ে পিটিয়ে গুরতর আহত করে একপর্যায় দাঙ্গাবাজ মুন্নার হাতে থাকা রামদা দিয়ে নুরুজ্জামানের মাথায় কোপ দিয়ে হত্যার চেষ্টা করে । রক্তাত্ব গুরতর আহত হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পরলে তাদের ডাকচিৎকারে এলাকাবাসী এগিয়ে এলে মুন্না তার দলবল নিয়ে পালিয়ে যায় ।
বাদী রাসেল সাংবাদিকদের জানান,সোনাখালি,নোয়ানগর,বাগবাড়ি,ছোটকৃষনার্দী ,বৃহত্তম দরিকান্দি সহ কয়েকটি গ্রামে সনমানন্দী ইউনিয়নের জিন্নাহ চেয়ারম্যানের নাম ভাঙ্গিয়ে সন্ত্রাসী ,চাঁদাবাজী সহ বিভন্ন অপকর্ম করে বেরায় মুন্না ও তার বাহিনী ।

জিন্নাহ চেয়ারম্যান তার আপন মামা এই দাপটে সে বেপরোয়া ভাবে অপকর্ম করে প্রভাব বিস্তার করে এলাকাবাসীদের আতংকে রেখেছে। রাসেল আরোও জানায়, গত ৮ মাস আগে সুরজ্জামান ওরফে ভুট্টোর কাছে ২ লাখ টাকা চাঁদা দাবী করে জিন্নার বোনের জামাই সন্ত্রাসী মুন্নার বাবা খোরশেদ ,না দেওয়াতে এলোপাথারী কুপিয়ে জখম করলেও তাদের দাপটের ভয়ে থানায় অভিযোগ পর্যন্ত করতে সাহস পায়নি। সন্ত্রাসী মুন্না ও তার পরিবারের জুলুম থেকে রাসেলের পরিবার ও এলাকাবাসীদের রক্ষা করতে সংশ্লীষ্ট আইনপ্রয়োগকারী সংস্থার নিকট জোরদাবী জানায় ভুক্তভোগী রাসেল ও তার পরিবার।