বিধবার জমি দখল নিতে বেপরোয়া ভূমিদস্যু শামীম.পুলিশ সুপারের কাছে আভিযোগ

0
112
 
সোনারগাঁও (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি ঃ নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ের মোগরাপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের মাধপুর গ্রামে সকিরুন নেসা নামে এক বিধবার জমি জাল দলিল করে দখলের পায়তারা করছে একটি ভূমিদস্যু চক্র। এই ভূমিদস্যু চক্রটিই কয়েক বছর আগে তার একমাত্র ছেলে শফিকুলকে হত্যা করে লাশ গুম করেছিল বলে অভিযোগ করেছেন অসহায় ওই নারী।
বেপরোয়া হয়ে ওঠা এলাকার চিহ্নিত ভূমিদস্যু  শামীমের বিরুদ্ধে সোনারগাঁও থানা এবং পুলিশ সুপার কার্যালয়ে অভিযোগ দায়ের করেছেন সকিরুন নেসা।
অভিযোগে বলা হয়, নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওয়ে  জমির দালাল থেকে ভূমিদস্যু বনে যা্ওয়া মাধবপুর গ্রামের আঃ খালেকের ছেলে শামিমের বিরুদ্ধে অসহায় ওই বিধবা নারীর ৮৫ শতাংশ জমি জাল দলিল করে দখল করে নিচ্ছে।
উপজেলার মোগরাপাড়া ইউপির মাদবপুর এলাকার মৃত আব্দুস ছালামের স্ত্রী মোমাম্মৎ সাকিরুননেছা (৬৫) বাদি হয়ে সম্প্রতি সোনারগাঁও থানায়  ভূমিদস্যু শামিমের বিরুদ্ধে অভিযোগটি দায়ের করেন।
অভিযোগপত্রে তিনি বলেন, স্বামীকে হারিয়ে গত ২০০৩ সালে আমার বাবার বাড়ি থেকে পাওয়া টাকা ও আমার স্বামীর জমানো টাকায় চরসফিখাঁ মৌজাস্থ আরএস ২৪৮ এসএ ১৮৬ দাগে ৮৫ শতাংশ জায়গায় চাষ ও আবাদ করে ৪ মেয়েকে নিয়ে জীবন যুদ্ধে টিকে আছি।
বর্তমানে আমাকে অসহায় পেয়ে আমার এই জমির  মাদবপুর গ্রামের আ. খালেকের ছেলে শামীম হোসেন (৩২) জাল দলিল করে সন্ত্রাসীদের মাধ্যমে অবৈধভাবে ড্রেজার দিয়ে বালু ভরাট করতে মরিয়া হয়ে আমার জমি দখল করে নিতে চাইছে।
বিভিন্ন সময় তার সন্ত্রাসী বাহিনী দিয়ে বিভিন্নভাবে আমাকে ভয়ভীতি প্রদর্শনসহ আমার ও আমার মেয়েদের হত্যা করার হুমকি দিয়ে আসছে। এই ভূমিদস্যু চক্রটি আমার জমি দখলের জন্য দেড় যুগ আগে আমার একমাত্র ছেলে শাফিকুল ইসলামকে নৃশংসভাবে হত্যা করে।
এই সন্ত্রাসী বাহিনী আমাকে জমির সামনে গেলে মেরে আমার ছেলে মতোই হত্যা করে লাশ গুম করে ফেলবে বলেও হুমকি দিয়ে আসছে। এমতাবস্থায় এই করোনা পরিস্থিতিতে নিদারুণ কষ্টে ও আতঙ্কে জীবন যাপন করছি।
সোনারগাঁও থানার অফিসার্স ইনচার্জ মো. রফিকুল ইসলাম জানান, বিধবার জমি দখলে করার বিষয়ে একটি অভিযোগ পেয়েছি, তদন্ত পূর্বক আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।