জমি নিয়ে বিরোধের জের সোনারগাঁওয়ে মা ও ছেলেকে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা

0
116

 

আজকের সোনারগাঁও :-নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে ভাটিপাড়া এলাকায় জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে মামুন খন্দকার (৩২) ও তার মা ফাতেমা আক্তারকে (৫০) কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা করেছে স্থানীয় একটি ভূমিদস্যুচক্র ও মাদক ব্যবসায়ীরা।

গুরুতর আহত অবস্থায় মামুনকে সোনারগাঁও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। শনিবার সকালে ওই সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, মোগরাপাড়া ইউপির ভাটিপাড়া গ্রামের মামুন খন্দকার ও তার মা ফাতেমা আক্তার পরিবার পরিজন নিয়ে তার পৈত্রিক সম্পত্তি উপরে একটি বাড়ি নির্মাণের কাজ তদারকি করছিলেন।

এ সময় সন্ত্রাসী বাহিনী ও মাদকসেবীদের নিয়ে ওই সম্পত্তি দখলের চেষ্টা করে তাদের পাশের গ্রাম শুকুরদীর মো. কিরন মিয়ার ছেলে মো. রাজন (৩৮) ও মো. সেরজালালের ছেলে মো. তদবির (৩৯) ও মাদক ব্যবসায়ী আলাল এবং তার লোকজন।

মামুন খন্দকার বলেন, দীর্ঘ দিন ধরেই তারা ওই সম্পত্তির দখলের চেষ্টা করে আসছিল ভূমিদস্যু ওই চক্রটি। এ নিয়ে আগেও আরেক দফা হামলা চালিয়েছিল ওই গ্রুপটি। তখন বিষয়টি নিয়ে স্থানীয় গণ্যমান্যদের কাছে অভিযোগ করা হলেও কোন সমাধান হয়নি।

শনিবার সন্ত্রাসীরা আবারও আমাদের পৈত্রিক সম্পত্তি দখল করতে এলে আমরা তাদের বাঁধা দিলে শুকুরদীর মো. কিরন মিয়ার ছেলে মো. রাজন (৩৮) ও মো. সেরজালালের ছেলে মো. তদবির (৩৯) ও তার সন্ত্রাস বাহিনী দেশী অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে চড়াও হয়। এতে আমি ও আমার মা গুরুত্বর জখম হয়ে বর্তমান হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আছি।

অন্যদিকে বর্তমানে সন্ত্রাসীদের ভয়ে বাড়িতে যেতে পারছেন না বলেও জানান আহত মামুন ও তার মা।

এই ঘটনায় সোনারগাঁ থানায় শুকুরদীর মো. কিরন মিয়ার ছেলে মো. রাজন (৩৮) ও মো. সেরজালালের ছেলে মো. তদবিরসহ (৩৯) অজ্ঞাতনামা সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়।

এ ব্যাপারে সোনারগাঁও থানার ওসি রফিকুল ইসলাম জানান, সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় একটি অভিযোগ পেয়েছি। বিষয়টি তদন্তে এসআই শাহাদাৎকে ঘটনাস্থলে পাঠিয়েছি। আসামি গ্রেফতারে অভিযান চলছে।